ঢাকাই সিনেমার প্রিয়দর্শিনী নায়িকা মৌসুমীর জন্মদিন

27

বিনোদন ডেস্কঃ সোনারদেশ২৪:

জীবনের আরেকটি বসন্ত পার করলেন ঢাকাই সিনেমার অন্যতম সফল চিত্রনায়িকা আরিফা জামান মৌসুমী। মঙ্গলবার (৩ নভেম্বর) ৪৮তম জন্মদিনের কেক কাটবেন তিনি।

প্রিয়দর্শিনী মৌসুমী এবার করোনা মহামারির কারণে জন্মদিনের কেক কাটার মুহূর্ত অনলাইনে ভক্তদের সঙ্গে ভাগ করে নেবেন। মৌসুমীর স্বামী ওমর সানী, দুই সন্তান ফারদিন ও ফাইজা তার সঙ্গে থাকবেন।

এছাড়া মৌসুমী ফ্যান ক্লাব এবং ওমর সানী ফ্যান ক্লাব আলাদাভাবে দিনটি বিশেষভাবে উদযাপন করবে বলে জানান মৌসুমী। তবে এবারের জন্মদিনে মা বিদেশ থাকায় কিছুটা মন খারাপ রয়েছে এই তারকার।

মৌসুমী বলেন, এবারের জন্মদিন আরও বেশি প্রাণবন্ত হয়ে উঠতো, যদি আম্মু পাশে থাকতেন। তিনি এখন আমার ছোটবোন ইরিনের কাছে আছেন। প্রতিদিনই আম্মুকে মিস করি। তবে জন্মদিনে যেন একটু বেশিই মিস করছি।

১৯৭২ সালে ৩ নভেম্বর খুলনায় জন্মগ্রহণ করেন মৌসুমী। তার বাবা নাজমুজ্জামান মনি ও মা শামীমা আখতার জামান। মৌসুমী ১৯৯৬ সালের ২ আগস্ট চিত্রনায়ক ওমর সানীর সঙ্গে ঘর বাঁধেন তিনি।

১৯৯৩ সালে ক্ষণজন্মা চিত্রনায়ক সালমান শাহর বিপরীতে সোহানুর রহমান সোহান পরিচালিত ‘কেয়ামত থেকে কেয়ামত’ সিনেমার মধ্য দিয়ে বড় পর্দায় অভিষেক ঘটে মৌসুমীর। এরপর থেকে তাকে আর পেছনে ফিরে তাকাতে হয়নি। একের পর এক দর্শক নন্দিত সিনেমার মাধ্যমে দেশীয় চলচ্চিত্রে অন্যতম শীর্ষ নায়িকা হিসেবে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করেন তিনি।

প্রায় তিন দশক ধরে ঢাকাই সিনেমায় নিজের অভিনয় দক্ষতার দ্যুতি ছড়িয়ে আসছেন মৌসুমী। দীর্ঘ ক্যারিয়ারে কাজ করেছেন দুই শতাধিক সিনেমায়। এরমধ্যে নারগিস আক্তার পরিচালিত ‘মেঘলা আকাশ’ ও চাষী নজরুল ইসলাম পরিচালিত ‘দেবদাস’ সিনেমায় অভিনয়ের জন্য পেয়েছেন জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার।

সালমান শাহের সঙ্গে জুটি বেঁধে ক্যারিয়ার শুরু করা মৌসুমী সফল হয়েছেন ওমর সানী, রিয়াজ, ফেরদৌস, ইলিয়াস কাঞ্চন ও মান্নার সঙ্গে জুটি বেঁধে।

মৌসুমী অভিনয়ের পাশাপাশি নির্মাতা হিসেবে সাফল্য পেয়েছেন। ‘কখনো মেঘ কখনো বৃষ্টি’ মৌসুমী পরিচালিত প্রথম সিনেমা। তারপর তিনি ২০০৬ সালে ‘মেহের নিগার’ পরিচালনা করেন। এরপর নির্মাণ করছেন ‘শূন্য হৃদয়’, ‘ভালোবাসবোই তো’ নামের দুটি সিনেমা।

নায়িকা-নির্মাতার পাশাপাশি একজন মডেল হিসেবেও তার জনপ্রিয়তা আকাশ ছোঁয়া। এছাড়া কয়েকটি প্রতিষ্ঠানের শুভেচ্ছাদূত হিসেবেও কাজ করছেন এই নায়িকা। জাতিসংঘের শিশু তহবিল সংস্থা ইউনিসেফের শুভেচ্ছাদূত হিসেবে কাজ করেছেন। এককথায় নানামুখী সামাজিক কর্মকাণ্ডেও নিজেকে জড়িয়ে রেখেছেন জনপ্রিয় এই অভিনেত্রী।

দীর্ঘ চলচ্চিত্র ক্যারিয়ারের অসংখ্য জনপ্রিয় সিনেমা উপহার দিয়েছেন মৌসুমী। এর মধ্যে-  দোলা, আত্মঅহংকার, স্নেহ, প্রথম প্রেম, দেনমহর, অন্তরে অন্তরে, বিদ্রোহী বধূ, মুক্তির সংগ্রাম, হারানো প্রেম, ভাংচুর, সাজন, শেষ খেলা, আত্মত্যাগ, বিশ্ব প্রেমিক, গরিবের রাণী, প্রিয় তুমি, রাক্ষস, সুখের স্বর্গ, আদরের সন্তান, সুখের ঘরে দুঃখের আগুন, লুটতরাজ, আম্মাজান, শান্তি চাই, অন্ধ ভালোবাসা, মিথ্যা অহংকার, ঘাত-প্রতিঘাত, সংসারের সুখ-দুঃখ, প্রিয় শত্রু, লাট সাহেবের মেয়ে, লজ্জা, তুমি সুন্দর, বাঘের বাচ্চা, রূপসী রাজকন্যা, মোল্লা বাড়ির বউ, গোলাপী এখন বিলাতে প্রভৃতি উল্লেখযোগ্য।

You might also like