বালিশকাণ্ড : ছয় মাসের মধ্যে চার্জশিট দেয়ার নির্দেশ

25

সোনারদেশ২৪: ডেস্কঃ

পাবনার রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎ প্রকল্পে আলোচিত বালিশকাণ্ডের ঘটনায় ফিল্ড অফিসার প্রকৌশলী মো. শফিকুল ইসলামের বিরুদ্ধে দুদকের করা তিন মামলার তদন্ত শেষ করে ৬ মাসের মধ্যে চার্জশিট দাখিলের নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট।

সোমবার (১৯ অক্টোবর) ওই মামলার এক আসামির জামিন প্রশ্নে জারি করা রুল শুনানিতে বিচারপতি মো. নজরুল ইসলাম তালুকদার ও বিচারপতি আহমেদ সোহেলের ভার্চ্যুয়াল বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

দুদকের পক্ষে ছিলেন আইনজীবী মো. খুরশীদ আলম খান, রাষ্ট্রপক্ষে ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল একেএম আমিন উদ্দিন মানিক ও সহকারী অ্যাটর্নি জেনারেল মাহজাবিন রাব্বানী দীপা, আবেদনকারী পক্ষে ছিলেন আইনজীবী সাঈদ আহমেদ রাজা।

পরে আমিন উদ্দিন মানিক জানান, রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎ প্রকল্পের উপসহকারী প্রকৌশলী শফিকুল ইসলামের তিন মামলায় জামিন প্রশ্নে রুল জারি করা রুল ছয় মাসের জন্য স্ট্যান্ডওভার রেখেছেন এবং ছয় মাসের মধ্যে মামলার তদন্তকাজ শেষ করার জন্য তদন্তকারী কর্মকর্তাকে নির্দেশ দিয়েছেন।

রূপপুর বিদ্যুৎ প্রকল্পের বালিশকাণ্ডে জড়িত থাকার অভিযোগে গত বছরের ১২ ডিসেম্বর দুদক পাবনায় চারটি মামলা দায়ের করেন। দুদকের উপ-পরিচালক নাসির উদ্দিন ও উপ-সহকারী পরিচালক শাহজাহান মিরাজ বাদী হয়ে পাবনায় দুদকের সমন্বিত জেলা কার্যালয়ে এসব মামলা করেন। এজাহারে বলা হয়েছে, পরস্পর যোগসাজশে ক্ষমতার অপব্যবহার করে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানকে লাভবান করতে গণপূর্ত অধিদফতরের কতিপয় প্রকৌশলী রূপপুর গ্রিন সিটির ২০ তলা ফাউন্ডেশনের ছয় ইউনিটবিশিষ্ট এক নম্বর ভবনের কিছু সিভিল এবং ই/এম ওয়ার্কসহ আইটেম কেনাকাটার ক্ষেত্রে বাজারমূল্য থেকে বেশি মূল্য দেখানো হয়। অতিরিক্ত পরিবহন খরচ, তলাভিত্তিক উত্তোলন খরচ ও শ্রমিকের মজুরি যোগ করে প্রাক্কলন প্রস্তুত করা হয়।

You might also like