‘লাদাখের ১ হাজার বর্গকিলোমিটার চীনের দখলে’

36

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ সোনারদেশ২৪:

লাদাখ সীমান্তের প্রকৃত নিয়ন্ত্রণ রেখার (এলএসি) আশপাশে প্রায় এক হাজার বর্গকিলোমিটার এলাকা এখন চীনের নিয়ন্ত্রণে আছে। কেন্দ্রীয় সরকারকে দেওয়া গোয়েন্দা তথ্যে এমনই ইঙ্গিত মিলেছে বলে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম দ্য হিন্দু জানিয়েছে।

গত এপ্রিল-মে থেকে চীন প্রকৃত নিয়ন্ত্রণ রেখার আশপাশে সেনা সমাবেশ ঘটাচ্ছে এবং তাদের উপস্থিতি জোরদার করছে। গত ১৫ জুন লাদাখের পূর্বাঞ্চলের গালওয়ান উপত্যকায় চীনের পিপলস লিবারেশন আর্মির (পিএলএ) সঙ্গে সংঘাতে অন্তত ২০ ভারতীয় সেনা নিহত হয়।

এক জ্যেষ্ঠ ভারতীয় কর্মকর্তা দ্য হিন্দুকে জানিয়েছেন, দেপসাং উপত্যকা থেকে চুশুল পর্যন্ত অমীমাংসিত নিয়ন্ত্রণ রেখাজুড়ে পরিকল্পিতভাবে সেনা সমাবেশ করছে চীন। দেপসাংয়ের টহল পয়েন্ট ১০ থেকে ১৩ পর্যন্ত এলাকা পর্যন্ত প্রায় ৯০০ বর্গকিলোমিটার এলাকা চীন নিয়ন্ত্রণ করছে বলে ধারণা করছে ভারত।

ওই কর্মকর্তা জানান, গালওয়ান উপত্যকায় প্রায় ২০ বর্গকিলোমিটার এবং হট স্প্রিংস এলাকায় ১২ বর্গকিলোমিটার এলাকা চীনের দখলে আছে। প্যাংগং সো লেকের কাছে ৬৫ বর্গকিলোমিটার এবং চুশুলে ২০ বর্গকিলোমিটার চীনের নিয়ন্ত্রণে আছে।

সীমান্তের এই অচলাবস্থা নিয়ে চীন ও ভারতের সামারিক থেকে শুরু করে কূটনৈতিক পর্যায়ে কয়েক দফা আলোচনা হয়েছে। গত ৫ জুলাই ভারতের বিশেষ প্রতিনিধি অজিত দোভাল এবং চীনের ওয়াং ই সীমান্ত বিরোধ চূড়ান্ত সমাধানে আংশিক অগ্রগতির কথাও জানিয়েছিলেন। তবে এরপরও সীমান্তে দুই দেশের বিরোধ থামার কোনো লক্ষণ দেখা যাচ্ছে না।

সেনা সূত্রের বরাত দিয়ে আনন্দবাজার অনলাইন জানিয়েছে, গত কয়েক দিনে চুশুলের অদূরে প্রকৃত নিয়ন্ত্রণ রেখা বরাবর বেশ কয়েক কিলোমিটার এলাকা জুড়ে চীনা সেনা মোতায়েন হয়েছে। টাইপ-১৫ হাল্কা ট্যাংক, মাল্টি ব্যারেল রকেট লঞ্চারের পাশাপাশি দুর্গম এলাকায় দ্রুত সেনা চলাচলের জন্য ইনফ্যান্ট্রি ফাইটিং ভেহিকল রয়েছে সেখানে। এমনকি, চীন নিয়ন্ত্রিত মলডোতে ভারী কামানসহ চিনা গোলন্দাজ-বাহিনীর উপস্থিতিও জানা গেছে।

You might also like