ডায়েটের জন্য রাতে রুটি খাওয়াও হতে পারে বিপজ্জনক

32

লাইফস্টাইল ডেস্কঃ সোনারদেশ২৪:

ডায়েটের জন্য অনেকে রাতে ভাত খাওয়ার অভ্যাস ত্যাগ করেন। শীতকালে রুটি খাওয়ার প্রবণতা আরও বেড়ে যায়। ভাত খাওয়ার পর অনেক সময়ে আলসেমি ভাব আসে। অনেকের ধারণা- রুটি খেলেই ভাল থাকা যায়। কিন্তু এই রুটি রাতের ডায়েটে নিয়মিত রাখলে তা বিপজ্জনক হয়ে উঠতে পারে।

গবেষকরা বলছেন- রোজ রাতে রুটি খেলে শরীরে নানা সমস্যা তৈরি হয়। যা শরীরের জন্য হুমকির কারণ হয়ে দাঁড়ায়। রুটি মানসিক অবসাদ ও ডিপ্রেশন বাড়িয়ে দিতে পারে। যুক্তরাষ্ট্রের জার্নাল অব ক্লিনিক্যাল নিউট্রেশনে প্রকাশিত এক প্রতিবেদন এমন তথ্য তুলে ধরেছেন গবেষকরা

রাতের ডায়েটে রুটিতে যেসব সমস্যা:

গমের তৈরি যেকোনো খাবার আমাদের শরীরে কোলেস্টেরলের সমস্যা বৃদ্ধি করে। তাই হৃদরোগ বিশেষজ্ঞরা রাতে রুটি না খাওয়ার পরামর্শ দিচ্ছেন। শুধু তাই নয়, রোগা হতে রুটি খাওয়ার অভ্যাস করেন অনেকে। মনে রাখবেন, রুটি খেলে আমাদের ত্বক অনেকটা কুচকে যায়। এমনকি ত্বকে বলিরেখাও দেখা দিতে পারে। এছাড়াও গমের তৈরি খাবারও বেশি খেলে মাথার চুল ঝরে যেতে পারে।

রুটি হজম করার ক্ষমতা সকলের থাকে না। রুটি রক্তে শর্করার মাত্রা আস্তে আস্তে বাড়াতে থাকে। ফলে উচ্চ রক্তচাপের সমস্যাও দেখা দিতে পারে। রাতে রুটি খেলে গ্যাসের সমস্যা হতে পারে। তাই আপনার জন্য রাতে রুটি খাওয়াটা সঠিক সিদ্ধান্ত কিনা, তা নিয়ে ডায়েটেশিয়ানের কাছ থেকে পরামর্শ নিন।

তবে আপনার শরীর রুটির সঙ্গে অভ্যস্ত হলে, ফিট চেহারার জন্য একেবারে আদর্শ। রুটিতে ক্যালোরির পরিমাণ খুবই কম। তাই রুটি খেলে শরীরের ওজন বৃদ্ধি হয় না। শরীরকে ফিট রাখে। রুটিতে যেহেতু ফ্যাট থাকে না। তাই রুটি খেলে ফ্যাট অর্থাৎ চর্বির আধিক্য হওয়ার সম্ভাবনা কমে।

তবে শরীর গঠনে যে সকল ভিটামিন ও খনিজের দরকার হয় তার সিংহভাগ রুটিতে থাকে। তাই রোজ রাতে রুটি খেলে সেগুলি শরীরে সহজেই প্রবেশ করতে পারে।

You might also like