খেলোয়াড়দের প্রতি বার্সার আচরণে হতবাগ বিশ্ব

38

ক্রীড়া ডেস্কঃ সোনারদেশ২৪:

বার্সেলোনার মত একটি ক্লাব যখন খেলোয়াড়দের সাথে অপেশাদার আচরণ করে তখন ব্যাপারটিকে কোনভাবেই স্বাভাবিক বলা যায় না। মেসি যখন বার্সেলোনা ছেড়ে চলে যাচ্ছিলেন তখন জল কম ঘোলা করেনি স্প্যানিশ এই ক্লাবটি। হয়তো মেসি ফুটবল দুনিয়ার সুপারস্টার সেই কারনেই তার সাথে মুখে বা কাজে কর্মে খারাপ ব্যাবহার করেনি বার্সেলোনা। তবে কম কিছুও তো করেনি? এই ব্যাপারটি সবারই জানা। তবে মেসির মত তারকা নয় বার্সেলোনা বাস্কেট বল দলের এক খেলোয়াড়ের সাথে চরম অসৎ আচরণ করেছে বার্সেলোনা।

বার্সেলোনা ছাড়তে চেয়ে চরম বিপদে পড়েছে থামাস উয়ের্তেল। থমাস যখন বার্সা ছাড়তে চায় তখন বার্সার কর্মকর্তারা ভেবেছিলেন ক্লাব ছাড়লে উয়ের্তেল যাবেন তুরস্কের ফেনেরবাচের বাস্কেটবল দলে। তাই প্রথম দিকে কিছুটা স্বাভাবিক ছিলো তারা।

কিন্তু খোঁজ খবর নিয়ে যখন জানতে পারেন ফ্রেঞ্চের এই তারকা চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী রিয়াল মাদ্রিদের সঙ্গে চুক্তি করতে যাচ্ছেন, তখনই ঘটলো যত বিপত্তি। গেল মঙ্গলবার ইস্তাম্বুলে আনাদলু এফের বিপক্ষে খেলা শেষে ফেরার পথে উয়ের্তেলকে দলের প্লেনেই উঠতে দেয়নি বার্সার কর্মকর্তারা।

এমন আচরণ বার্সার নতুন নয়, গেল কয়েক বছর হয় বেশ কিছু সাবেক ও বর্তমান খেলোয়াড়দের সাথেই এত বাজে আচরণ করেছে বার্সেলোনা। সেই সংবাদগুলো ফলাউ করে প্রচারও করেছে সে দেশের গণমাধ্যম। তবে এই করোনাভাইরাসের মধ্যে নিজের দলের খেলোয়াড়ের সাথে এমন আচরণ করায় নিন্দা ছাড়া আর কোন কিছুই পাচ্ছে না বার্সেলোনা।

এই ঘটনা নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে চলছে সমালোচনার ঝড়। রাশিয়ার সিএসকেএ মস্কোর পয়েন্ট গার্ড ও ইউরো লিগের তারকা মাইক জেমস টুইটে লিখেছেন, বার্সাকে সব সময়ই ইউরোপের অন্য দলগুলোর থেকে বেশি মর্যাদা দিয়েছি কিন্তু তারা থামাসের সাথে যা করেছে সেটা একেবারেই ন্যক্কারজনক ঘটনা।

বার্সার কথা একটাই তাদের পছন্দ করা দলেই যেতে হবে থমাসকে। তবে তার পছন্দের কোন দলে সে যেতে পারবে না। এই কথার প্রেক্ষিতে থমাস বলেছে আপনি যদি আমাকে যেতে দিতে না চান, আমি আমার পরিবারের জন্য সবচেয়ে ভালো যেটাতে হয় তা-ই করব।’

বার্সার সমর্থকদের প্রশংসা করলেও কর্মকর্তাদের ধুয়ে দিয়েছেন সেরাফিন তিনি বলেছেন ক্লাবটার সমর্থকেরা দারুণ। কিন্তু কর্মকর্তারা হচ্ছে কিছু পুতুলের মতো। বড়দিন উপলক্ষে আমি ওদের মস্তিষ্ক উপহার দেব।

আরেক ফরাসি বাস্কেটবল তারকা ইভান ফোরনিয়ের বার্সেলোনার বাস্কেটবল দলের টুইটার অ্যাকাউন্ট ট্যাগ করে লিখেছেন, তোমরা খুবই নিচু মানসিকতার!

স্পেনের বাস্কেটবল খেলোয়াড়দের সংগঠন এবিপিও এই আচরণের তীব্র নিন্দা জানিয়ে লিখেছেন, রাতের সাড়ে ১২টায় একজন খেলোয়াড় বিদেশের এক শহরে পড়ে আছে। তার ক্লাব তাকে ক্লাবে ফেরার বিমানে উঠতে দেয়নি। এর সাথে ক্লাবের যারা জড়িত তাদেরকে এখন ব্যাখ্যা করতে হবে যে কোভিড-১৯-এর কারণে পরিস্থিতিটা এখন কী দাঁড়িয়েছে? মানবিকতা বলতে কি কিছু নেই? আমরা ওই খেলোয়াড়ের সাথে নিয়মিত যোগাযোগ করে তাকে সব ব্যাপারে সাহায্য করছি।

You might also like