ফাইজার-বায়োএনটেকের ভ্যাকসিন পেয়েছে সিঙ্গাপুর

38

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ সোনারদেশ২৪:

প্রথম এশীয় দেশ হিসেবে ফাইজার-বায়োএনটেকের উদ্ভাবিত নভেল করোনাভাইরাসের (কোভিড-১৯) ভ্যাকসিন পেয়েছে সিঙ্গাপুর। গতকাল ২১ ডিসেম্বর, সোমবার দেশটিতে ভ্যাকসিনের প্রথম চালান পৌঁছেছে বলে দ্য স্ট্রেট টাইমসের খবরে বলা হয়েছে।

এই সংবাদে উচ্ছ্বাস প্রকাশ করে দেশটির প্রধানমন্ত্রী লি সিয়েন লুং ফেসবুকে লিখেন, “একটি ‘দীর্ঘ ও কষ্টকর’ বছর অতিক্রম করেছি। আশা করি, (করোনার) ভ্যাকসিন আসার সংবাদ সিঙ্গাপুরবাসীকে আনন্দিত করবে।’

সংবাদ সূত্রে জানা যায়, করোনার ভ্যাকসিন নেয়ার বিষয়টিকে ঐচ্ছিক রেখেছে সিঙ্গাপুর সরকার। তবে দেশটির প্রধানমন্ত্রী লি সিয়েন লুং অবশ্য এই ভ্যাকসিন নিতে জনসাধারণকে উদ্বুদ্ধ করে চলেছেন।

আগামী বছরের সেপ্টেম্বর নাগাদ তৃতীয় পর্যায়ে প্রায় ৫৭ লাখ লোককে টিকা দেয়ার পরিকল্পনা নিয়েছে সিঙ্গাপুর। ইতোমধ্যে দেশটির সরকার জানিয়েছে, করোনার ভ্যাকসিন পাওয়ার ক্ষেত্রে অগ্রাধিকার পাবেন স্বাস্থ্যকর্মী, প্রবীণ এবং চিকিৎসাগতভাবে দুর্বল ব্যক্তিরা।

গত সপ্তাহেই প্রথম এশীয় দেশ হিসেবে ফাইজার-বায়োএনটেকের উদ্ভাবিত নভেল করোনাভাইরাসের (কোভিড-১৯) ভ্যাকসিনের অনুমোদন দেয় সিঙ্গাপুর। এরপরই গতকাল সোমবার সিঙ্গাপুর এয়ারলাইন্সের একটি ফ্লাইটে করে বেলজিয়াম থেকে আসে ভ্যাকসিনের প্রথম চালান।

ফাইজার-বায়োএনটেকের এই ভ্যাকসিন প্রতি ব্যক্তিকে দুটি করে ডোজ নিতে হবে। সেইসাথে ভ্যাকসিটির সঠিক কার্যকারিতা বজায় রাখতে সংরক্ষণ করতে হবে মাইনাস ৭০ ডিগ্রি তাপমাত্রার নিচে।

ইতোমধ্যে সিঙ্গাপুরে ভ্যাকসিন সঠিকভাবে সংরক্ষণের জন্য স্থানীয়ভাবে দৈনিক চার টন শুকনো বরফ তৈরি করা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন দেশটির পরিবহনমন্ত্রী ওং ইয়ে কুং।

You might also like