লেগ স্পিনার থেকে যেভাবে বিশ্বসেরা ব্যাটসম্যান

40

ক্রীড়া ডেস্কঃ সোনারদেশ২৪:

ব্যাট হাতে অস্থির। বলের মুখোমুখি হওয়ার আগ পর্যন্ত নড়াচড়া কিংবা নাচানাচি। দেখলেই মনে হবে এই বুঝি আউট। কিন্তু আউট হন না তিনি, খেলেন সুনিপুণ দক্ষতায়; মারেন সবচেয়ে সুন্দর শট। এভাবেই স্টিভেন স্মিথ রাজ করে যাচ্ছেন ২২ গজের পিচে।

মাঠের লড়াইয়ে নামার আগে ‘স্পেশাল কিউ অ্যান্ড এ’তে বিরাট কোহলি-স্টিভেন স্মিথ মুখোমুখি হন কথার লড়াইয়ে। দুজনে প্রশ্ন করেন একে অপরকে। এভাবেই চলতে থাকে বিশ্বের দুই সেরা ব্যাটসম্যানের আলাপচারিতা।

এর মধ্যে কোহলি স্মিথকে একটি প্রশ্ন করেন, তুমি যখন ক্রিকেট খেলা শুরু করেছ সবাই মনে করেছে অস্ট্রেলিয়া নতুন শেন ওয়ার্ন পেয়েছে। আর এখন তুমি বিশ্বের এক নম্বর টেস্ট ব্যাটসম্যান। কীভাবে এটা সম্ভব?

স্মিথের উত্তর তিনি বল করতে ভালোবাসতেন। কিন্তু লেগ স্পিন করা অনেক কষ্টকর তাই বাদ দিয়ে ব্যাটিংয়ে মনোযোগ দিয়েছেন তিনি। ‘আমি বল করতে ভালবাসি। তবে লেগস্পিন বল করা খুব পরিশ্রমের। একই সময় বল, ব্যাট, ফিল্ডিং তিনটে দিকেই নজর দেওয়া বেশ কঠিন হয়ে যাচ্ছিল। ধীরে ধীরে ব্যাটিংয়েই মন দিলাম‘-বলছিলেন স্মিথ।

এরপর কোহলির আবার বলেন আমি শুনেছি তুমি দিনে ৩-৪ ঘণ্টা ব্যাট করো। এটা শুনে স্মিথ বলেন ‘হ্যাঁ কখনো-কখনো।‘ বল টেম্পারিংয়ের জন্য একবছর নিষিদ্ধ ছিলেন স্মিথ। ফিরে খেলতে নামেন ২০১৯ ক্রিকেট বিশ্বকাপ। সেখানে দর্শকরা যখনো তাকে দুয়ো ধ্বনি দিচ্ছেন তখন কোহলি গিয়ে তাদের থামিয়েছিলেন।
এটার জন্য ধন্যবাদ জানান স্মিথ। এরপর কোহলি বলেন, ‘একটা দুর্ঘটনা ঘটে গিয়েছিল। তোমরা বুঝতে পেরেছিলে ভুল হয়েছিল। অনেকটা সময় পর তোমরা ফিরে এসেছিলে ক্রিকেট মাঠে। একটা খারাপ সময়ের মধ্যে দিয়ে তোমরা গিয়েছিলে। আমার মনে হয়েছিল কোনও ব্যক্তিকে এই ভাবে আক্রমণ করা উচিত নয়।‘
আগামীকাল থেকে শুরু হবে অস্ট্রেলিয়া-ভারত টেস্ট সিরিজ। অ্যাডিলিডে কাল প্রথমটি টেস্টটি হবে দিবারাত্রির।

You might also like