ফেনী ট্রেন-বাসের সংঘর্ষের ৩ দিন পর ঝোপ থেকে লাশ উদ্ধার

31

সোনারদেশ২৪: ডেস্কঃ

ফেনীর ফতেহপুরে লেভেলক্রসিংয়ে ট্রেন ও বাসের সংঘর্ষের তিন দিন পর রেললাইনের পাশে ঝোপের ভেতর পাওয়া গেছে আরও এক ব্যক্তির অর্ধগলিত লাশ।

বাচ্চু মিয়া (৪৮) নামে ওই ব্যক্তি চট্টগ্রামের এনসিসি ব্যাংকের হালিশহর শাখার অফিস সহকারী ছিলেন। তার বাড়ি কুমিল্লার চৌদ্দগ্রাম উপজেলার গুণবতী ইউনিয়নে।

পুলিশের ধারণা, গত রবিবার দুর্ঘটনায় পড়া এনআর ট্রাভেলসের বাসটির যাত্রী ছিলেন বাচ্চু। ট্রেনের ধাক্কায় বাস উল্টে গেলে তিনি ছিটকে ঝোপের মধ্যে পড়েছিলেন, ফলে সেদিন তার খোঁজ পাওয়া যায়নি।

ফেনী রেলওয়ে পুলিশ ফাঁড়ির এসআই সাইফুল ইসলাম জানান, দুর্ঘটনাস্থলের কাছে স্থানীয় মসজিদের ইমাম ও নামাজ পড়তে আসা লোকজন দুর্গন্ধের কারণ খুঁজতে গিয়ে মঙ্গলবার রেললাইনের পাশে ঝোপের ভেতরে একটি অর্ধগলিত লাশ দেখতে পেয়ে পুলিশে খবর দেয়। পরে পুলিশ লাশটি উদ্ধার করে সঙ্গে থাকা পরিচয়পত্র ও মোবাইল ফোনের মাধ্যমে বাচ্চুর পরিচয় শনাক্ত করে। পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তারা এসে প্রশাসনের অনুমতি নিয়ে ময়নাতদন্ত ছাড়াই মরদেহ নিয়ে যান।

রবিবার ভোরে ঢাকা থেকে চট্টগ্রামগামী একটি মেইল ট্রেন ফতেহপুর রেলক্রসিং দিয়ে যাওয়ার সময় এনআর ট্রাভেলসের বাসটি সামনে পড়ে যায়। ট্রেনের ধাক্কায় বাসটি দুমড়ে মুচড়ে রেল লাইনের পাশে ছিটকে পড়ে। পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিসের সদস্যরা সেদিন ঘটনাস্থল থেকে ২ জনের মরদেহ ও আহত অবস্থায় ১৩ জনকে উদ্ধার করেন। আহতদের মধ্যে হাসপাতালে নেওয়ার পথে আরেকজন মারা যান।

You might also like