ব্রণ নিয়ে দুশ্চিন্তা? আজ থেকেই ত্যাগ করুন কিছু অভ্যাস

35

লাইফস্টাইল ডেস্কঃ সোনারদেশ২৪:

বকের ঠিক নীচেই থাকা তৈল গ্রন্থি থেকে নিঃসৃত তেল আমাদের ত্বককে নরম রাখে। সেই গ্রন্থির মুখ কোনও কারণে আটকে গেলে তার থেকে জন্ম নেয় এই সব প্রদাহ।

কেন ব্রণ হয়?

নানা কারণে ব্রণ, ফুসকুড়ি ইত্যাদির সমস্যা হয়। সুনির্দিষ্ট কারণ না থাকলেও হজমের সমস্যা, অ্যালকোহল, বয়ঃসন্ধিকালে হরমোনের প্রভাবেও ব্রণ হয়। অনেকের বংশগত কারণে ব্রণ হয়। ময়লা, ঘাম, দূষণ গ্রন্থির মুখে আটকে গেলে সিস্ট জমে এই সমস্যা দেখা দেয়। প্রথমে ফুসকুড়ি তারপর ব্রণ। শেষে তা বড় আকার নেয়। অনেকেরই মুখে তারপর দাগ থেকে যায়। সাধারণত, প্রোপাইনি ব্যাকটেরিয়াম একনিস নামের একধরনের জীবাণু ব্রণ এর জন্য দায়ী।

১. ত্বকের অযত্ন:

দূষণ, ময়লা, মেকআপ এবং অন্যান্য টক্সিন থেকে নিয়মিত ত্বক পরিষ্কার না করলে সহজেই ত্বকের ছিদ্র আটকে যায়। তাই রোজ ঘুমোতে যাওয়ার আগে এবং ঘুম থেকে উঠে ফেশওয়াশ বা স্ক্রাবার দিয়ে মুখ পরিষ্কার করতে হয়।

টেনশন থেকেও হয় ব্রণ
টেনশন থেকেও হয় ব্রণ। ছবি: সংগৃহীত


২. জীবাণু সংক্রমণ:

নিয়মিত ত্বক পরিষ্কার করতে কেবল ফেসওয়াশ বা শাওয়ার জেল যথেষ্ট নয়। আপনার ত্বকে সংক্রমণ হলে তা কমাতে যেমন চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে হয় তেমনি স্ক্রাবার দিয়ে ত্বক এক্সফোলিয়েট করতে হয়।

৩. হরমোনের পরিবর্তন:

হরমোন ক্ষরণের তারতম্য ঘটলেও এই সমস্যা দেখা দিতে পারে। হরমোনের কমবেশি ক্ষরণ ব্রণের পাশাপাশি বয়সেরও ছাপ ফেলে ত্বকে।

অতিরিক্ত জাঙ্ক ফুডও ব্রণের কারণ
অতিরিক্ত জাঙ্ক ফুডও ব্রণের কারণ। ছবি: সংগৃহীত


৪. অতিরিক্ত জাঙ্ক ফুড:

চিজি পিজ্জা, বার্গার বা পকোড়া, মিষ্টি, ক্যাডবেরি, কোল্ড ড্রিংকস যত খাবেন ততই ব্রণের সমস্যা বেশি হবে। এই ধরনের জাঙ্ক ফুড হজমের সমস্যার কারণ। সেটিও ব্রণের অন্যতম কারণ। এর থেকে ওবেসিটিও হয়।

৫. টেনশন থেকেও হয় ব্রণ:

অতিরিক্ত তৈলাক্ত ত্বক এবং অবসাদ, টেনশন জন্ম দেয় মুখ ভর্তি ব্রণ। তাই সবসময় টেনশন ফ্রি থাকার চেষ্টা করুন।

৬. কম ঘুম:

কম ঘুম ব্রণের জন্য দায়ী। চিকিৎসকেরা তাই বলেন রোজ ৭-৮ ঘণ্টা ঘুমোনো দরকার। এতে ত্বকে হরমোনাল ব্যালান্সও ঠিক থাকে। রক্ত সঞ্চালন ভালো হয়। ত্বক থাকে আয়নার মতোই ঝকঝকে।

ধীরেসুস্থে ত্বক পরিষ্কার করুন
ধীরেসুস্থে ত্বক পরিষ্কার করুন। ছবি: সংগৃহীত


৭. অতিরিক্ত ঘাম:

অত্যধিক ঘাম থেকেও অনেকের ব্রণ হয়। তাই যাঁরা নিয়মিত ওয়ার্কআউট করেন বা রোদে ঘোরেন তারা মাঝেমধ্যেই ত্বক ধুয়ে নেবেন। কারণ, বেশি ঘাম হলেই জীবাণু, ময়লা, দূষণ আটকে ত্বকের ছিদ্র বন্ধ হয়ে যায়। জন্ম নেয় ত্বকের নানা সমস্যা।

৮. সঠিক মেকআপ প্রোডাক্ট ব্যবহার না করা:

ত্বকের প্রকৃতি অনুযায়ী মেকআপ নির্বাচন করুন। রাতে ঘুমোতে যাওয়ার আগে অবশ্য়ই মেকআপ তুলবেন। না হলে সারারাত ওই মেকআপ বসে ত্বক ব্রণ সৃষ্টি করবে।

You might also like