যৌতুকের জন্য গৃহবধূকে হত্যা, স্বামী ও শ্বশুরের মৃত্যুদণ্ড

44

সোনারদেশ২৪: ডেস্কঃ

টাঙ্গাইলে যৌতুকের জন্য গৃহবধূকে হত্যার দায়ে স্বামী ও শ্বশুরের মৃত্যুদণ্ড এবং এক লাখ টাকা জরিমানার আদেশ দিয়েছেন আদালত। দণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন নিহত ওই নারীর স্বামী জহিরুল ইসলাম (২৫) ও শ্বশুর মজনু মিয়া (৫৫)। আসামিরা পলাতক রয়েছে।

সোমবার (৩১ আগস্ট) দুপুরে টাঙ্গাইল নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক খালেদা ইয়াসমিন এ রায় দেন। এ কথা নিশ্চিত করেছেন টাঙ্গাইল আদালত পরিদর্শক তানভীর আহমেদ।

মামলার বিবরণে জানা যায়, ২০১৪ সালে টাঙ্গাইলের ভূঞাপুর উপজেলার তছলিম উদ্দিন তার মেয়ে তাছলিমা আক্তারকে (২১) বিয়ে দেন একই উপজেলার মজনু মিয়ার ছেলে জহিরুল ইসলামের সঙ্গে। বিয়ের পর থেকেই তাছলিমা আক্তার নির্যাতনের শিকার হয়েছেন। যৌতুকের জন্য তাকে শ্বশুরবাড়ির লোকজন মারধর করত।

২০১৬ সালের ২৮ নভেম্বর তাছলিমাকে কোথাও খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না বলে তার বাবা তছলিমকে মোবাইল ফোনে বিষয়টি জানান জহিরুল ইসলাম।

পরে ওই দিনই তছলিম উদ্দিন তার মেয়েকে না পাওয়ায় ভূঞাপুর থানায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেন। ২৯ নভেম্বর যমুনা নদীর পাড় থেকে তাছলিমার মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।

পরে এ ঘটনায় মেয়ের জামাই ও শ্বশুরসহ তিনজনের নাম উল্লেখ করে নিহতের বাবা তাছলিম উদ্দিন বাদী হয়ে ভূঞাপুর থানায় একটি হত্যা মামলা করেন। এরপর থেকেই আসামিরা পলাতক।

You might also like