বিদ্যুৎ ব্যবহারে মিতব্যয়ী হোন : প্রধানমন্ত্রী

24

সোনারদেশ২৪: ডেস্কঃ

গ্রাহকদের বিদ্যুৎ ব্যবহারে মিতব্যয়ী হওয়া আহ্বান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বলেছেন, ‘বিদ্যুৎ উৎপাদনে সব সময় ভর্তুকি দেয়া সম্ভব হবে না। অপচয় না করলে, বিলের ভোগান্তি থেকে বাঁচবেন গ্রাহক।’

আজ ২৭ আগস্ট, বৃহস্পতিবার সকালে গণভবন থেকে থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে দেশের ৩১টি উপজেলাকে শতভাগ বিদ্যুতায়নের উদ্বোধনীতে এসব কথা বলেন তিনি। এ অনুষ্ঠানেই বগুড়া ও নোয়াখালীতে দুটি পাওয়ার প্ল্যান্ট, ১১টি গ্রিড সাব-স্টেশন, ছয়টি নতুন সঞ্চালন লাইনও উদ্বোধন করেছেন প্রধানমন্ত্রী।

তিনি বলেন, ‘বিদ্যুৎ থাকলে কর্মসংস্থান ও অর্থনৈতিক উন্নয়নের সৃযোগ সৃষ্টি হয়। আর তাই ৯৬ সালে ক্ষমতায় এসেই বিদ্যুৎ উৎপাদন বাড়াতে কাজ শুরু করে সরকার।’

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘ক্ষমতায় আসার পর আমাদের প্রধান চেষ্টা ছিল রাস্তাঘাটের উন্নয়ন ও বিদ্যুতের ব্যবস্থা। শুধু বাতি জ্বেলে বসে থাকা নয়। বিদ্যুৎ থাকলে কর্মসংস্থানের ও অর্থনৈতিক উন্নয়নের একটা সুযোগ সৃষ্টি হয়। ২০০৯ সালে সরকার গঠনের পর থেকে আমরা এ পর্যন্ত বিদ্যুৎ উৎপাদন বৃদ্ধি করতে পেরেছি। বিদ্যুৎ উৎপাদন ও গ্রাহক বাড়িয়েছি।’

সব জায়গায় যাতে বিদ্যুৎ পৌঁছায় সেজন্য সৌর বিদ্যুতের উদ্যোগ নেওয়া হয় বলেও জানান তিনি।

বিএনপি জোট সরকারে আমলে বিদ্যুৎ পাওয়াটাই ছিলো ভাগ্যের ব্যাপার উল্লেখ করে শেখ হাসিনা বলেন, ‘এ অবস্থার পরিবর্তন ঘটিয়ে শুধু রাজধানী কিংবা শহর নয়; গ্রাম ও দুর্গম এলাকাতেও বহুমুখী পদ্ধতিতে বিদ্যুৎ সরবরাহ করা হচ্ছে। রাজনৈতিক দৃষ্টিভঙ্গিতে করা হচ্ছে না এলাকাভিত্তিক বৈষম্য।’

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘বিএনপি-জামায়াত সরকারের আমলে দেখা যেতো বাজেটের আগে গোপালগঞ্জের জন্য অনেক উন্নয়নের কথা বলা হতো। কিন্তু বাজেটের সময় দেখা যেতো সেই টাকা কোথায় জানি চলে গেছে। গোপালগঞ্জে বিদ্যুৎ পেতাম না। জেনারেটর চালিয়ে বাতি জ্বালতে হতো।’

তার সরকার সেভাবে কোনো জেলার উন্নয়ন করেনা উল্লেখ করে শেখ হাসিনা আরো বলেন, ‘তার একটি দৃষ্টান্ত আজ দেখা যাবে। বগুড়া জেলায় ১১০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎকেন্দ্রের উদ্বোধন করা হচ্ছে। এছাড়া ওই জেলার মহাস্থানগড় ও শেরপুরে বিদ্যুৎকেন্দ্র স্থাপন করা হবে।’

তিনি এসময় জানান, ২০৪১ সালের মধ্যে দেশে ৬০ হাজার মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রা নেওয়া হয়েছে। শহরের পাশাপাশি গ্রামের মানুষও যাতে বিদ্যুৎ পায় সেই ব্যবস্থাও করা হচ্ছে।

You might also like