বার্সা ছাড়ছেন মেসি!

34

ক্রীড়া ডেস্কঃ সোনারদেশ২৪:

বার্সেলোনার সঙ্গে লিওনেল মেসির সম্পর্কটা একেবারে নাড়ির। সেই শৈশবের লা মাসিয়া বেয়ে হেসেখেলে বেড়ে উঠেছেন আলো-বাতাস গায়ে মেখে। ক্লাবটির তো বটেই, নিজেকে নিয়ে গেছেন সর্বকালের সেরাদের কাতারে। এই ক্লাবটাকে কতোশত ট্রফিও জিতিয়েছেন একার নৈপুণ্যে। সেই মেসি কি লজ্জাজনক এক রাতের দুঃসহ স্মৃতি নিয়ে প্রিয় আঙিনাকে বিদায় বলতে যাচ্ছেন?

প্রতি মৌসুমেই ক্ষুদে জাদুকরের দলবদলের গুঞ্জনে সরগরম থাকে ইউরোপীয় ফুটবল পাড়া। বিশ্বসেরা তারকাকে দলে ভেড়াতে টাকার জাহাজ নিয়ে হাজির হন ধনকুবেররা। তবে সেসব গুঞ্জন কখনো হালে পানি পায়নি, প্রায় দেড়যুগের সম্পর্কটা ছিন্ন করে মেসিও কখনো অর্থলোভে গা ভাসাননি। ক্লাবটির প্রতি তার আন্তরিকতার প্রমাণ যে সেটিও! কিংবা কৃতজ্ঞতাবোধ।

যাই হোক, এবার নাকি সময় হয়েছে এইসব আবেগ-বোধ কে ঠেলে ক্লাব ছাড়ার ঘোষণা দেয়ার। অন্ততঃ ইউরোপীয়ান ফুটবল বিশ্লেষকরা এমনটাই মনে করেন।

যুক্তি আছে তাদের হাতেও। একেবারে শূন্য হাতে পুরো একটা মৌসুম এর আগে কখনো পাড়ি দিতে হয়নি মেসির। গেল ১৫ বছরে বার্সাকে বেশ কয়েকবার ট্রেবল, কোয়াড্রাপল জিতিয়েছেন তিনি। অন্ততঃ একটা ট্রফি হলেও জিতেছেন অন্য মৌসুমগুলোতে। এবার যে একেবারে নিঃস্ব, রিক্ত হাতে ফিরতে হচ্ছে পরাজিত সৈনিকের বেশে!

প্রজন্মের সেরা ফুটবলারের কি এমন কিছু প্রাপ্য? সবকিছুর জন্য কি মেসিই দায়ী? দলের অন্য ফুটবলাররা কি ক্লাবের নামের ভারটা নিতে পারছেন? বিশ্লেষকরা মনে করছেন, মেসি বিহীন বার্সেলোনা তলাবিহীন ঝুড়ির মতো। আর তাই তো, সাধারণ মানের এই ক্লাবে মেসির পড়ে থাকার কোন যুক্তিই দেখেন না তারা।

সাবেক ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড তারকা ও জনপ্রিয় ধারাভাষ্যকার রিও ফার্ডিনান্ড মনে করেন, আগামী মৌসুমের আগেই বার্সেলোনা ছেড়ে যাওয়ার কথা বিবেচনা করবেন বার্সা সুপারস্টার লিওনেল মেসি।

আগামী মৌসুমেই কাতালানদের সঙ্গে চুক্তি শেষ হচ্ছে আর্জেন্টাইন তারকার। ফার্ডিনান্ড মনে করেন, বায়ার্নের বিপক্ষে এমন লজ্জাজনক হারের পর ক্লাব ছাড়ার কথা ভাবতেই পারেন মেসি।

দুই অর্ধ্বেই চার গোল করে হজম করতে হয়েছে বার্সেলোনার। শেষ পর্যন্ত ব্যবধানটা দাঁড়িয়েছে ৮-২। লিওনেল মেসির ক্যারিয়ারে এমন দুঃসহ রাত আগে কখনো আসেনি।

এমন ফলাফলের পর ক্লাবে বেশ পরিবর্তন আসতে যাচ্ছে সেটিই স্বাভাবিক। ম্যাচশেষে এমন আভাস দিয়েছেন ক্লাব সভাপতি হোসে বার্তোমিউ।

এরমধ্যে কোচ সেতিয়েন এবং ফুটবল পরিচালক এরিক আবিদালের প্রস্থানের গুঞ্জনটাই সবচেয়ে জোরালো। তবে সবচেয়ে বড় চমক হয়ে আসতে পারে মেসির সিদ্ধান্ত। অন্য কারো বিদায়ে নিশ্চয়ই এতোটা আঘাত পাবেনা কেউ, মেসি বার্সা ছাড়লে যতোটা পাবেন সবাই।

আগামী মৌসুমে চুক্তি শেষ হবে মেসির। নতুন চুক্তিপত্রে এখনো স্বাক্ষর করেননি তিনি। ক্লাব ছাড়ার গুঞ্জনটা তাই একেবারে উড়িয়েও দেয়া যাচ্ছে না।

ম্যান ইউনাইটেডের সাবেক ডিফেন্ডার ফার্ডিনান্ডও মনে করেন, মেসির আর বার্সেলোনায় থাকা ঠিক হবে না।

তিনি বলেন, মেসি কি ভাবছেন সেটা হচ্ছে বড় প্রশ্ন? রাতে বাড়ি গিয়ে তিনি কি ভাববেন? ক্লাবটির বর্তমান পারফরম্যান্স এবং অবস্থান ইউরোপীয় ফুটবলের কোন পর্যায়ে আছে সেটি নিশ্চয়ই ভাববেন মেসি। তিনি ছাড়া এই দলটা যে একেবারেই সাদামাটা। তিনি কি এখনো এখানে থেকে যাওয়ার কথা ভাববেন? নতুন করে দল গোছানোর জন্য অপেক্ষা করবেন? নাকি ছেড়ে যাবেন? সবই তার সিদ্ধান্ত। তিনি কি আর কোন শিরোপার জন্য ছুটবেন না? যদি আরো শিরোপা জিততে চান তাহলে তার উচিত এখনই বার্সা ছেড়ে যাওয়া।

ম্যান ইউর আরেকজন সাবেক তারকা ওয়েন মনে করেন, মেসি ছাড়া বর্তমান বার্সেলোনায় আর কিছুই অবশিষ্ট নেই।

তিনি বলেন, মেসি নিশ্চয়ই সারাক্ষণ ভেবেছেন, জাভি কিংবা ইনিয়েস্তা কোথায়? ডিফেন্সে পুয়োল কোথায়? তিনি নিশ্চয়ই ওদেরকে মিস করেছেন। আনসু ফাতি কিংবা অনেকেই হয়তো এসেছেন। কিন্তু মেসি এবং তাদের মধ্যে বিশাল ফারাক আছে। এবং সেটি কাটিয়ে উঠতে অনেকদিন সময় লাগবে।

ততোদিন পর্যন্ত কি মেসি অপেক্ষা করবেন? নতুনদের হাতে প্রিয় ক্লাবটাকে সমর্পন করবেন? নাকি তার আগেই ক্লাব ছাড়ার ঘোষণাটা দিয়েই দেবেন!

You might also like