ইস্পাহানি গ্রুপের দেড় কোটি টাকার ভ্যাট ফাঁকি

32

সোনারদেশ২৪: ডেস্কঃ

চট্টগ্রামে ইস্পাহানি গ্রুপের ৪টি প্রতিষ্ঠানের ১৮ কোটি ২৭ লাখ টাকার পণ্য বিক্রির তথ্য গোপনের অভিযোগে মামলা করেছে ভ্যাট নিরীক্ষা গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদপ্তর। মামলায় কোম্পানিটির বিরুদ্ধে প্রায় দেড় কোটি টাকার ভ্যাট ফাঁকির অভিযোগ আনা হয়েছে।

মঙ্গলবার (০৩ নভেস্বর) বিষয়টি নিশ্চিত করে ভ্যাট গোয়েন্দা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক ড. মইনুল খান বলেন, ভ্যাট গোয়েন্দা অধিদপ্তর চট্টগ্রামের ইস্পাহানি গ্রুপের ৪টি প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে ভ্যাট ফাঁকির মামলা দায়ের করেছে। গত ৭ সেপ্টেম্বর ভ্যাট গোয়েন্দার একটি দল প্রতিষ্ঠানগুলোতে অভিযান পরিচালনা করে।

তিনি বলেন, ভ্যাট ফাঁকির উদ্দেশ্যে প্রকৃত বিক্রির তথ্য গোপন করায় ওই মামলা দায়ের করা হয়। প্রতিষ্ঠান ৪টি হচ্ছে- দি অ্যাভিনিউ হোটেল অ্যান্ড স্যুটস (ভ্যাট নিবন্ধন নং-১৯০৯৮৭৪-০৫০৩), পিটস্টপ সুইটস অ্যান্ড বেকারি (ভ্যাট নিবন্ধন নং-০০০০১৮৪৮৮-০৫০৩), পিটস্টপ শো-রুম (ভ্যাট নিবন্ধন নং-০০১৯০৯৮৩৮-০৫০৩) এবং পিটস্টপ সুপার স্টোর (ভ্যাট নিবন্ধন নং- ০০১৯০৯৮৩৮-০৫০৩)।

ভ্যাট গোয়েন্দা জানায়, অনুসন্ধানে চট্টগ্রামের ইস্পাহানি গ্রুপের ৪টি প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে প্রায় ১৮ কোটি ২৭ লাখ টাকার গোপন বিক্রির তথ্য উদঘাটন করা হয়।এর মাধ্যমে ইস্পাহানি গ্রুপের ৪টি প্রতিষ্ঠান সুদসহ প্রায় ১ কোটি ৫০ লাখ টাকার ভ্যাট ফাঁকি দিয়েছে। ভ্যাট ফাঁকির সুনির্দিষ্ট অভিযোগের ভিত্তিতে গত ৭ সেপ্টেম্বর ভ্যাট গোয়েন্দা উপ-পরিচালক তানভীর আহমেদ ও সহকারী পরিচালক মো. মহিউদ্দীনের নেতৃত্বে অভিযান চালায়।

অনুসন্ধানে, দি এভিনিউ হোটেল অ্যান্ড স্যুটস ২০১৫-১৬ ও ২০১৬-১৭ অর্থবছরে দাখিলপত্রে বিক্রয়মূল্য প্রদর্শন করেছে ৮৭ লাখ ৭২ হাজার ১৪৬ টাকা।কিন্তু জব্দ করা কম্পিউটার থেকে প্রকৃত বিক্রয়মূল্য পাওয়া যায় ১ কোটি ২৯ লাখ ৯৩ গাজার ৮১৪ টাকা। এক্ষেত্রে  ৪২ লাখ ২১ হাজার ৬৬৮ টাকার বিক্রির তথ্য গোপনের মাধ্যমে প্রতিষ্ঠানটি ৬ লাখ ৩৩ হাজার ২৫০ টাকা ভ্যাট ফাঁকি দিয়েছে। ভ্যাট আইন অনুযায়ী সুদ আসে ৪ লাখ ৯৯ হাজার ৫৬৯ টাকা।

You might also like