দেহ ব্যবসায় রাজি না হওয়ায় বন্ধুকে দিয়ে স্ত্রীকে ধর্ষণ!

29

সোনারদেশ২৪: ডেস্কঃ

জামালপুরের বকশীগঞ্জে দেহ ব্যবসায় রাজি না হওয়ায় বন্ধুকে দিয়ে স্ত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে স্বামী রাশেদ মিয়ার (৩০) বিরুদ্ধে।

এ ঘটনায় স্বামীসহ দুই জনের বিরুদ্ধে বকশীগঞ্জ থানায় মামলা হলে শুক্রবার (০৯ অক্টোবর) ভোরে নিজ বাড়ি থেকে স্বামী রাশেদ মিয়াকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

তবে এখনো পলাতক রয়েছে বন্ধু মোশারফ হোসেন। রাশেদ মিয়া বকশীগঞ্জ উপজেলার বিনোদের গ্রামের মণ্ডল মিয়ার ছেলে ও মোশারফ মিয়া পার্শ্ববর্তী পাগলাপাড়া গ্রামের নেহাল মিয়ার ছেলে।

বকশীগঞ্জ থানার মামলা সূত্রে জানা যায়, টাকার লোভে দীর্ঘদিন ধরে স্ত্রীকে দেহ ব্যবসার জন্য চাপ দিতে থাকেন রাশেদ। এতে রাজি না হওয়ার স্ত্রীর ওপর শারীরিক নির্যাতনও চালায় রাশেদ। গত বুধবার রাতে বন্ধু মোশারফকে খদ্দের হিসেবে নিয়ে আসেন রাশেদ। কিন্তু গৃহবধূ  রাজি না হওয়ায় তাকে ধর্ষণ করে মোশারফ। পরে এ ব্যাপারে থানায় অভিযোগ দিতেও বাধা দেয় রাশেদ।

এ বিষয়ে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা বকশীগঞ্জ থানা পুলিশের উপ-পরিদর্শক (এসআই) আকিকুল হোসেন জানান, ঘটনার পরে ওই গৃহবধূ তার বাবার বাড়িতে গিয়ে তার ভাবিকে ঘটনা খুলে বলে। এরপর তার ভাবির কথামতো তিনি থানায় অভিযোগ দেন।  অভিযোগ দেওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই মামলাটি রের্কড হয়। পরে ভোর রাতে রাশেদ মিয়াকে নিজ বাড়ি থেকে গ্রেফতার করা হয়। অপর আসামি মোশারফ হোসেনকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

বকশীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শফিকুল ইসলাম সম্রাট জানান, মামলার ভিত্তিতে আসামিকে গ্রেফতার করে  জামালপুর আদালতে এবং ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য ওই গৃহবধূকে জামালপুর মেডিক্যালে পাঠানো হয়েছে।

You might also like