লো ইনভেস্টমেন্ট বিজনেস আইডিয়া!

30

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ সোনারদেশ২৪:

ব্যবসা করতে চান, অথচ পুঁজি কম? যদি আপনি নিজে কোনও ব্যবসা শুরু করার পরিকল্পনা করছেন তাহলে একবার নিম্নের ব্যবসাগুলি করার কথা ভেবে দেখতে পারেন৷ এই ব্যবসাগুলির জন্য বিনিয়োগও (Low Investment Business) খুব বেশি করতে হয় না৷ বাড়িতে বসেই ছোট আকারে এই ব্যবসা শুরু করতে পারেন আর লাভের মুখ দেখতে দেখতে বড় আকারেও তা পরবর্তীতে বড় আকারে করতে পারেন।

ফুচকা তৈরি ব্যবসা (Phuchka made business): কম পুঁজি থাকলে দুশ্চিন্তার কিছু নেই, কারণ ফুচকার ব্যবসার খুব বড় পরিমাণে বিনিয়োগের প্রয়োজন পড়ে না৷ প্রাথমিক স্তরে কম বিনিয়োগেই আপনি শুরু করতে পারবেন৷ তবে পরিশ্রম কম করতে চাইলে কম দামে মেশিনের খোঁজ করতে পারেন৷ মেশিনের সাহায্যে এক ঘন্টায় প্রায় ৬,০০০ ফুচকা তৈরি করে নিতে পারবেন৷ সঠিক পদ্ধতিতে, সঠিক স্থানে বড় আকারে ফুচকার ব্যবসা করতে পারলে মাসে ৫০,০০০ টাকার বেশিও লাভ করতে পারেন৷

টি-শার্ট প্রিন্টিং-এ পুঁজি (Cost in T-shirt printing business): আপনি এই ব্যবসা আপনার বাড়িতে বসেই শুরু করে দিতে পারবেন৷ এতে প্রতি মাসে আপনার ৩০-৪০ হাজার টাকার লাভ হতে পারে৷ প্রিন্টিং-এর জন্য যে টি-শার্ট নেওয়া হয় তা প্রায় ১২০টাকার মধ্যে হয়ে যায়৷ ১ টাকা থেকে ১০ টাকার মধ্যে প্রিন্টিং বেঁধে রাখতে পারেন৷ এই প্রিন্টেড টি-শার্ট আপনি ২০০-২৫০ টাকাতে বিক্রি করতে পারেন (আপনার ওপর তা নির্ভর করছে)৷ এভাবে প্রতি মাসে প্রচুর টাকা লাভ করতে পারেন৷

আচার তৈরির ব্যবসা (Pickle Business): আচার আমাদের দেশের একটি ঐতিহ্যবাহী খাবার, যা বেশ জনপ্রিয়। প্রায় প্রতিটি বাড়িতেই এটি খাওয়া হয়। আপনি যদি একটি ছোট ব্যবসা শুরু করার কথা ভেবে থাকেন, তবে এটি আপনার পক্ষে একটি ভাল ব্যবসা হতে পারে, কারণ এই ব্যবসাটি বেশ নিরাপদ এবং সহজ। দেশের বাজার ছাড়াও বিদেশেও এর ব্যাপক চাহিদা রয়েছে।

মুদি দোকান বা গ্রসারি শপ (Grocery Shop): মুদির দোকান ব্যবসা শুরুর প্রাথমিক ক্ষেত্রে একটি ভালো বিকল্প হতে পারে৷ এতে আপনি আপনার পুঁজি অনুযায়ী বিনিয়োগ করে ছোট স্তরে সহজেই ব্যবসা শুরু করতে পারবেন৷ এর জন্য বিশেষ কোনও প্রশিক্ষণের প্রয়োজন হয় না৷

দোকান কম রয়েছে অথচ জনবহুল এলাকা, এমন স্থানে দোকান খুলতে পারলে তেমন প্রতিযোগিতার মুখে পড়তে হবে না৷ আপনি চাইলে এর সঙ্গে হোম ডেলিভারির কাজও যুক্ত করতে পারেন, যেখানে গেরস্থালির জিনিসপত্র আপনি নিজের বা অন্যের দোকান থেকে বাড়ি বাড়ি পৌঁছে দেওয়ার ব্যবস্থায় অতিরিক্ত উপার্জন করতে পারবেন৷

জৈব সবজি বৃদ্ধি এবং বিক্রয়: আপনি জৈব সবজি চাষের ব্যবসা শুরু করতে পারেন এবং বাজারে এর চাহিদা বেশী হওয়ায় তা বিক্রীতে আপনার সমস্যা হবে না। জৈব সবজির চাহিদা দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে এবং এর দামও বাজারে বেশ ভালো। এমতাবস্থায় এই ব্যবসা আপনার জন্য বেশ উপকারী হতে পারে। তবে আপনি বাজারে নতুন এবং ক্রেতাদের সম্পর্কে অনভিজ্ঞ হলে প্রথম দিকে বিক্রেতার মাধ্যমে শুরু করাই ভাল হবে।

You might also like