২০টি দেশ ভ্যাকসিনের অর্ডার করেছে : দাবি রাশিয়ার

30

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ সোনারদেশ২৪:

সদ্য অনুমোদনকৃত রাশিয়ার করোনার (কোভিড-১৯) ভ্যাকসিনের জন্য ২০টি দেশ অগ্রীম অর্ডার করেছে। এই অর্ডারের পরিমাণ এক বিলিয়ন ডলার বা ১০০ কোটি। এমনটাই দাবি করেছে রাশিয়া। গত মঙ্গলবার রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন ভ্যাকসিন অনুমোদনের বিষয়টি জানান।

ফ্রান্সের বার্তাসংস্থা এএফপি জানায়, নতুন করোনার ভ্যাকসিন নেয়ার জন্য ২০টি দেশ অগ্রীম অর্ডার করেছে বলে জানিয়েছে রাশিয়া। এই অর্ডারের পরিমাণ এক বিলিয়ন। আগামী সেপ্টেম্বর মাস থেকে এই ভ্যাকসিনের উৎপাদন শুরু হবে বলেও জানায় এই সংবাদ সংস্থাটি।

এ বিষয়ে পুতিন বলেছিলেন, গত মঙ্গলবার মস্কোর গামালিয়া ইনস্টিটিউটের তৈরি করা এই ভ্যাকসিন রাশিয়ার স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের সবুজ সংকেত পেয়েছে। শিগগিরই গণহারে এই ভ্যাকসিনের উৎপাদন শুরু হবে বলেও আশা প্রকাশ করেন তিনি।

তিনি আরো বলেছিলেন, এর মধ্যেই তার নিজের মেয়ে করোনার এই ভ্যাকসিন নিয়েছেন। ভ্যাকসিন নেয়ার পর তার মেয়ের শরীরের তাপমাত্রা হালকা বৃদ্ধি পেয়েছিল। কিন্তু দ্রুতই তা কমে যায়।

এ বিষয়ে পুতিন বলেন, ‘আজকের সকালে বিশ্বে প্রথম করোনার টিকা নিবন্ধন করা হলো। আমার এক মেয়ে ভ্যাকসিনটি নিয়েছে। এদিক থেকে তিনি ভ্যাকসিনের পরীক্ষায় অংশ নিয়েছেন। ভ্যাকসিন নেওয়ার পর তার শরীরের তাপমাত্রা ৩৮ হয়েছিল, পরদিন ৩৭। এতটুকুই।’

এদিকে দেশটির উপ-প্রধানমন্ত্রী ট্যাটিয়ানা গোলিকোভা বলেছিলেন, সেপ্টেম্বরের শুরুর দিকে স্বাস্থ্যকর্মীদের মাঝে প্রথম এই ভ্যাকসিন প্রয়োগ করা হবে। তবে সাধারণ জনগণের জন্য ভ্যাকসিনটি সহজলভ্য হবে আগামী বছরের জানুয়ারির শুরুতে।

বিশ্বে প্রথম হিসেবে রাশিয়ার অনুমোদিত করোনার এই ভ্যাকসিনের সুরক্ষা নিয়ে অনেকেই প্রশ্ন তুলেছেন। তবে মানবদেহে পরীক্ষার মাত্র দুই মাসের মধ্যে ভ্যাকসিনটি চূড়ান্ত অনুমোদন পাওয়ায় অনেকেই রাশিয়ার বৈজ্ঞানিক সক্ষমতারও প্রশংসা করেছেন। ট্রায়ালের সমস্ত ধাপ উত্তীর্ণ হয়নি বলে অভিযোগ করেছেন গোটা বিশ্বের বিশেষজ্ঞদের একাংশ। তাই এর কার্যকারিতা নিয়ে প্রশ্ন একটা থেকেই যাচ্ছে।

You might also like