আটক জঙ্গিদের নিয়ে সিলেটে অভিযান চালাচ্ছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী

17

সোনারদেশ২৪: ডেস্কঃ

সিলেটে আটক জঙ্গিদের সঙ্গে নিয়ে নগরের বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালাচ্ছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা। নগরের টিলাগড়ের শাপলাবাগ আবাসিক এলাকার একটি বাসাকে ঘিরে রেখে অভিযান চালাচ্ছে তারা।

মঙ্গলবার (১১ আগস্ট) রাত সাড়ে নয়টা থেকে ঢাকার কাউন্টার টেররিজম ইউনিট, পুলিশ ও র‌্যাব যৌথভাবে এ অভিযান শুরু করে। মঙ্গলবার রাত সাড়ে আটটায় নগরের নব্য জেএমবি নেতা জঙ্গি সানাউল ইসলাম সাদের নগরের জালালাবাদ আবাসিক এলাকায় ৪৫/১০ নম্বর বাসায় অভিযান চালিয়ে বোমা তৈরির সরঞ্জাম ও কম্পিউটার ডিভাইস জব্দ করে ঢাকা মহানগর পুলিশের কাউন্টার টেররিজম ইউনিট।

এ সময় সিলেট মহানগর পুলিশের সদস্যরাও উপস্থিত ছিলেন বলে জানিয়েছেন সিলেট সিটি কর্পোরেশনের ৭নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর আফতাব হোসেন খান।

তিনি জানান, জালালাবাদ আবাসিক এলাকার ৪৫/১০নং বাসার মুক্তিযোদ্ধা মইনুল আহমদের বাসায় অভিযান চালায় পুলিশ। অভিযানের সময় আমিও উপস্থিত ছিলাম। এ সময় বাসা থেকে বোমা, বোমা তৈরির এবং কিছু কম্পিউটার সরঞ্জাম উদ্ধার করে নিয়ে যায় পুলিশ। উদ্ধারকৃত কম্পিউটারে বোমা তৈরির বেশকিছু ভিডিও ছিল।

এদিকে রাত সাড়ে ১০টায় এ প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত টিলাগড়ের শাপলাবাগ ৩ নম্বর সড়কের একটি বাসা ঘিরে রেখেছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। মঙ্গলবার ভোররাতে আটক করা দুই জঙ্গি সদস্যকে সঙ্গে নিয়ে অভিযান চালানো হচ্ছে বলে জানা গেছে।

এ বিষয়ে এসএমপির শাহপরান সেকেন্ড অফিসার উপ-পরিচালক (এসআই) সোহেল রানা জানান, ঢাকা মহানগর পুলিশের কাউন্টার টেররিজম ইউনিটের সঙ্গে আমাদের থানাপুলিশ টিলাগড় এলাকায় অভিযানে আছে। এই মুহূর্তে এর চেয়ে বেশি কিছু বলতে পারব না।

জালালাবাদ আবাসিক এলাকায় অভিযানের বিষয়ে এয়ারপোর্ট থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) শাহদাৎ হোসেন বলেন, আমাদের থানা পুলিশ নয়, অভিযানে এসএমপির মিডিয়া বিভাগের লোকজন ছিল।

তবে সিলেট মহানগর পুলিশের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার (মিডিয়া) জ্যোর্তিময় সরকারের মুঠোফোনে একাধিকবার কল করলেও তিনি ফোন রিসিভ করেননি।

প্রসঙ্গত ৯ আগস্ট থেকে সিলেট নগরে এবং আশপাশের কয়েকটি এলাকায় জঙ্গিবিরোধী অভিযান চালাচ্ছে ঢাকা পুলিশের কাউন্টার টেররিজম ইউনিট (সিটিটিসি)। অভিযানে এখন পর্যন্ত নব্য জেএমবির পাঁচ সদস্যকে আটক করা হয়েছে।

মঙ্গলবার দুপুরে পুলিশ জানায়, সিলেট নগরের মিরাবাজার উদ্দীপন-৫১ নম্বর বাসা থেকে গেল রোববার রাতে নব্য জেএমবির সিলেট অঞ্চলের কমান্ডার শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র নাইমুজ্জামান নাইমকে গ্রেফতার করা হয়। নাইমের কাছ থেকে তথ্য পেয়ে সোমবার রাতে ও মঙ্গলবার ভোরে পৃথক দুটি অভিযানে আটক করা হয় আরও চারজনকে।

এর মধ্যে জালালাবাদ আবাসিক এলাকা থেকে সানাউল ইসলাম সাদকে এবং টুকেরবাজার এলাকা থেকে তিনজনকে আটক করা হয়। নাইম ও সাদ শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী।

এই পাঁচজন সিলেটে হজরত শাহজালাল (রহ.) মাজারে হামলার পরিকল্পনা করছিল বলে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী সূত্রে জানা গেছে। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত টিলাগড়ে অভিযান চলছে।

You might also like