ট্রাম্পের ছেলে ‘ট্রাম্পের চেয়েও বড় ট্রাম্প’

22

সোনারদেশ২৪: ডেস্কঃ

মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনকে সামনে রেখে রিপাবলিকান পার্টির সম্মেলনের প্রথম রাতেই জ্বলাময়ী বক্তব্য রেখে সমর্থকদের তুমুল হর্ষধ্বনি কুড়িয়েছেন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের বড় ছেলে ডোনাল্ড ট্রাম্প জুনিয়র। রিপাবলিকানদের চোখে ভবিষ্যৎ নেতা তো বটেই, অনেক সমালোচকের নজরেও নির্বাচনী প্রচারণায় তুরুপের তাস হয়ে উঠেছেন তিনি।

মঙ্গলবার রিপাবলিকানদের সম্মেলন ও ট্রাম্প জুনিয়রের অংশগ্রহণ নিয়ে বিশদ প্রতিবেদন করেছে ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি। সেখানে ট্রাম্পপুত্রের প্রভাব বোঝাতে তারা শিরোনাম করেছে ‘ট্রাম্প জুনিয়র: যে ছেলে ট্রাম্পের চেয়েও বড় ট্রাম্প।’

সম্মেলনে ট্রাম্প জুনিয়র বলেছেন, ‘অর্থনীতিতে ট্রাম্পের নীতি রকেটের জ্বালানির মতো।’ এদিন বাবার পক্ষে সাফাই গাইলেও তার বক্তব্যের বেশিরভাগ অংশ জুড়েই ছিল ডেমোক্র্যাট প্রেসিডেন্ট প্রার্থী জো বাইডেনের সমালোচনা।

তিনি বলেন, ‘বাইডেনের উগ্র বামপন্থী নীতি আমাদের অর্থনৈতিক পুনরুদ্ধার থামিয়ে দেবে।’ তার বাবা ডোনাল্ড ট্রাম্প হোয়াইট হাউসে থাকাকালীন যুক্তরাষ্ট্র যা যা অর্জন করেছে ডেমোক্র্যাটরা সেগুলো বাতিল করে দেবে বলেও সতর্ক করেন জুনিয়র।

jagonews24
ট্রাম্পপুত্র বলেন, ‘বাইডেন আপনার পকেটের অর্থ বের করে তা পানিতে ভাসিয়ে দেয়ার প্রতিজ্ঞা করেছেন। এটা বোধগম্যই, কারণ জো বাইডেন হচ্ছেন জলাভূমির লচ নেস মনস্টার (পৌরাণিক দানব)। গত অর্ধ-শতাব্দী ধরে তিনি সেখানেই ঘোরাফেরা করছেন।’

জ্বলাময়ী বক্তা, ক্রীড়াব্যক্তিত্ব ও সুযোগসন্ধানী ট্রাম্প জুনিয়র তার বাবাকে নির্বাচনে ফের জেতাতে যা যা সম্ভব সবই করছেন। পুনর্নির্বাচনে রিপাবলিকানদের পরিকল্পনা মূলত প্রেসিডেন্টের মূল সমর্থকদের উৎসাহিত করা, আর এ কাজে তুরুপের তাস ধরা হচ্ছে ট্রাম্পপুত্রকেই।

প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের সমর্থকদের অনেকেই জুনিয়রকে বাবার যোগ্য প্রতিনিধি মনে করছেন। তার নির্ভীকতারও ভক্তের অভাব নেই। কোনও কোনও ক্ষেত্রে বাবাকেও ছাড়িয়ে গেছেন তিনি। যেমন, বন্দুকের সাইলেন্সারের ওপর নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারে অস্ত্র শিল্প সংশ্লিষ্টদের দাবির প্রতি সহমত জানিয়েছেন জুনিয়র ট্রাম্প।

হফস্ট্রা ইউনিভার্সিটির এক্সকিউটিভ ডিন লরেন্স লেভি বলেন, ‘বাবার পক্ষে প্রচারণার ক্ষেত্রে অস্বাভাবিক কার্যকর এক পরামর্শক ট্রাম্প জুনিয়র। এটি তার আরও বড় ভূমিকার পথে একটি পদক্ষেপ হতে পারে।’

ট্রাম্প জুনিয়রকে তার বাবার তরুণ ও আরও কড়া সংস্করণ বলে বর্ণনা করেছেন নিউইয়র্ক-ভিত্তিক কুশলী জন রেইনিশ। তার ভাষায়, ‘ট্রাম্প জুনিয়র হচ্ছেন আগুনের ওপর গ্যাসোলিন।’

jagonews24

ট্রাম্প জুনিয়রের ছোটবেলা কেটেছে চেকোস্লোভাকিয়ায়। ২০ বছর বয়সে প্রকাশ্যে মাতলামির দায়ে জেলেও গিয়েছেন তিনি। সাবেক স্ত্রী ও একসময়ের মডেল ভেনেসা হেইডনের ঘরে তার পাঁচ সন্তান রয়েছে। ট্রাম্প জুনিয়রের বর্তমান প্রেমিকা কিম্বারলি গিলফয়েল রিপাবলিকানদের জন্য তহবিল সংগ্রহের দায়িত্বে রয়েছেন।

লরেন্স লেভির মতে, ট্রাম্প জুনিয়রের ভবিষ্যৎ নির্ভর করছে মূলত নির্বাচনী ফলাফলের ওপর। তিনি নিজেকে ট্রাম্পের আর্থিক ও রাজনৈতিক উত্তরাধিকারী হিসেবে তৈরি করলেও ভবিষ্যতে কী করবেন তা এই প্রচারণা কতটা সফল হবে তার ওপর নির্ভরশীল। তবে ট্রাম্পপুত্র ভবিষ্যতে অনেক দূর যাবেন বলেই বিশ্বাস এ বিশ্লেষকের।

You might also like