শিরোনাম:

নরসিংদীতে স্পিডবোটের মুখোমুখি সংঘর্ষে একজন নিহত

তাল গাছের শতাধিক বাবুই পাখির বাসা ভেঙে কারাগারে ৩ কৃষক

ডক্টরেট ডিগ্রি পেলেন মমতাজ

মঙ্গলবার ব্যাংকে লেনদেন ৩টা পর্যন্ত

তারাবি ও মসজিদে জামাত নিয়ে ধর্ম মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনা

কোন্দল-সংঘাতে আতঙ্কের জনপদ নোয়াখালী

অনলাইন ডেস্ক
প্রকাশিত : মার্চ ১২, ২০২১

সোনারদেশ২৪: ডেস্কঃ

নোয়াখালীতে আওয়ামী লীগের নিজেদের মধ্যে একের পর এক কোন্দল-সংঘাত। এসব ঘটনা নিয়ে গেল জানুয়ারি থেকে আতঙ্কের জনপদ নোয়াখালী।

সবশেষ ২১শে ফেব্রুয়ারি ও ৯ই মার্চের সহিংসতায় প্রাণ গেছে দুইজনের। আর এসব ঘটনায় ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছেন স্থানীয় ব্যবসায়ী ও সাধারণ মানুষ। দ্রুত শান্তি ফিরে পেতে সরকারের হস্তক্ষেপ চান। এদিকে সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান বাদলকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

বসুরহাট ও চাপরাশিরহাটে আওয়ামী লীগের দু’পক্ষের সংঘর্ষে সাংবাদিক মুজাক্কির ও যুবলীগ নেতা আলাউদ্দিন নিহত হওয়ার পর আতঙ্কে গোটা কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা।

বিশেষ করে বসুরহাট পৌরসভার সাধারণ মানুষ ও ব্যবসায়ীরা স্বাভাবিক কাজকর্ম, ব্যবসা-বাণিজ্য করতে না পেরে অসহায় অবস্থায় রয়েছে।

বসুরহাট পৌরসভার গেট, রূপালী চত্বর, বঙ্গবন্ধু চত্বরসহ গুরুত্বপূর্ণ স্থানে পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। এছাড়া পুলিশের একাধিক মোবাইল টিম ও র‌্যাব সদস্যরা সার্বক্ষণিক টহলে রয়েছেন। পরবর্তী নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত কাউকে কোনো ধরনের সভা-সমাবেশ করতে দেয়া হবে না বলে জানিয়েছে পুলিশ।

পুলিশ সুপার আলমগীর হোসেন মুঠোফোনে বলেন, ‘পরবর্তীতে যেন কোন রকম বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি না হয় সে দিকে দেখার চেষ্টা করছি। কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার এই পরিস্থিতিতে ৩শত এর কাছাকাছি পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।’

এর আগে, পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে উপজেলা প্রশাসন বুধবার সকাল ৬টা থেকে রাত ১২টা পর্যন্ত ১৪৪ ধারা জারি করে। এতেও ওই এলাকার মানুষ স্বস্তি বোধ করছে না, এখানো তাদের আতঙ্ক কাটেনি।

এদিকে, কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মিজানুর রহমান বাদলকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। বিকেল সোয়া ৪টার দিকে জেলা প্রেসক্লাব এলাকার একটি চা দোকান থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

পূর্ববর্তী সংবাদ পরবর্তী সংবাদ
সর্বশেষ সংবাদ
  • সর্বাধিক পঠিত