শিরোনাম:

ইভ্যালির গ্রাহকরা যেন ক্ষতিগ্রস্ত না হয়: টিক্যাব

ভারতে মোদির জন্মদিনে দেওয়া হবে দেড় কোটি টিকা

মেট্রোরেলের মালামাল চুরি, গ্রেপ্তার ৫

পুষ্টিগুণে ভরা জাম্বুরা

র‍্যাংকিংয়ে আরও পেছাল বাংলাদেশ

ঐশ্বরিয়া অন্তরঙ্গ দৃশ্য করেন না কেন, জানালেন অভিষেক

অনলাইন ডেস্ক
প্রকাশিত : এপ্রিল ২২, ২০২১

শেয়ার করুন

বিনোদন ডেস্কঃ সোনারদেশ২৪:

বিশ্বসুন্দরী ঐশ্বরিয়া রাই অভিষেককে বিয়ের পর সিনেমায় কাজ কমিয়ে দিয়েছেন। বচ্চন পরিবারের বউ হওয়ার পর সংসারে সময় বেশি দিতে হচ্ছে। শশুরবাড়ির চাওয়ায় এমনটি হয়েছে কিনা সেটি এখনও স্পষ্ট হওয়া যায়নি। যার রূপের জাদুতে মুগ্ধ বিশ্ব, পর্দায় তার দীর্ঘ অনুপস্থিতি ভাবাচ্ছে দর্শকদের।

ভালোবেসে ২০০৭ সালে ২০ এপ্রিল নিজের থেকে দুই বছরের ছোট অভিষেকের সঙ্গে গাঁটছড়া বাধেন ঐশ্বরিয়া রাই। দেখতে দেখতে দাম্পত্য জীবনের ১৩টি বছর কাটিয়ে দিয়েছেন তারা। সম্প্রতি তারা ১৪তম বিবাহবার্ষিকীতে পা দেন।

জুটিবদ্ধ হয়ে একসঙ্গে বেশ কয়েকটি ছবিতে অভিনয় করেছেন অভিষেক-ঐশ্বরিয়া। এর মধ্যে উল্লেখযোগ্য- ‘ধাই অক্ষর প্রেম কে’ (২০০০), ‘কুছ না কহো’ (২০০৩), ‘উমরাও জান’, ‘ধুম টু’ (২০০৬), ‘গুরু’ (২০০৭) এবং ‘রাবণ’ (২০১০)। ‘উমরাও জান’ ছবির সেট থেকেই শুরু হয় তাদের প্রেমের গল্প।

বিয়ের আগে হলিউড সিনেমায়ও অভিনয় করেছেন ঐশ্বরিয়া। সেখানে একটু আধটু হট দৃশ্যে দেখা গেছে এই নায়িকাকে। কিন্তু বিয়ের পর তাকে কোনো অন্তরঙ্গ দৃশ্যে দেখা যায়নি। অথচ বলিউড-হলিউড সিনেমার বড় অনুসঙ্গ হচ্ছে হট দৃশ্য।

বিয়ের দুই বছর পর ২০০৯ সালে জনপ্রিয় মার্কিন সঞ্চালিকা অপরাহ্ন উইনফ্রে-র শো’তে হাজির হয়েছিলেন ঐশ্বরিয়া। তবে সেবার তিনি একা নন, তার সঙ্গে অতিথি হিসেবে হাজির হয়েছিলেন অভিষেক বচ্চন।

সেই অনুষ্ঠানেই অপরাহ্ন ঐশ্বরিয়াকে প্রশ্ন করেছিলেন ‘তুমি কখনও পর্দায় চুমু খাওনি কেন?’ অ্যাশ দ্রুত অভিষেকের দিকে ফিরে বলেন, ‘গো অন বেবি…’। এরপরই অভিষেক স্ত্রীর গালে আলতো চুমু খান।

সাবেক এই বিশ্বসুন্দরীকে করা সেই প্রশ্নের জবাবটা দিয়েছেন অভিষেক বচ্চন। বলেছিলেন, চুমু পশ্চিমী সংস্কৃতিতে যতোখানি সাধারণ চোখে দেখা হয়, ভারতের ক্ষেত্রে ব্যাপারটা তেমন নয়। আমার মনে হয় না ভারতীয় দর্শক চুম্বনের প্রয়োজনীয়তা অনুভব করে।
অভিষেক যোগ করেন, ধরুন, ভারতীয় ছবিতে যদি এমন কোনো দৃশ্যের পরিকল্পনা হয়- যেখানে একটা ছেলে একটা মেয়েকে দেখবে, ভালোবাসবে এবং এরপর একে অপরকে নিজেদের মনের কথা বলবে, তাহলে ভালোবাসার অভিব্যক্তি হিসেবে পশ্চিমা ছবিতে তারা একে অপরকে চুমু খাবে আর বলিউডের ছবিতে একটা রোম্যান্টিক গান শুরু হয়ে যাবে। সেটা কি বেশি ইন্টারেস্টিং নয়?

‘অন্তরঙ্গ একটা মুহূর্ত শুরু হবে…তারপরেই একদম সোজা কোনো বরফঢাকা পাহাড়ে পৌঁছে যাবেন আপনি..এরপর নাচ-গান। সেটা তো বেশি মনোগ্রাহী। আমার তো তাই মনে হয়।’’

স্বামীর কথায় অকুণ্ঠ সমর্থন দিয়ে ঐশ্বরিয়া বলেছিলেন, ‘হ্যাঁ আমাদের গানের দৃশ্য থাকে সঙ্গে সঙ্গে, এটি দারুণ মজার।’

পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ
সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত