শিরোনাম:

ঝাড়বাতির সঙ্গে বিয়ে!

রাজকন্যা লতিফার অবিলম্বে মুক্তির দাবি জাতিসংঘের

অসহায়দের সহায়তায় ১০ কোটি টাকা অনুদান প্রধানমন্ত্রীর

মিসরের ট্রেন দুর্ঘটনায় নিহত বেড়ে ২৩

‘শিশুবক্তা’ রফিকুল ইসলাম ৪ দিনের রিমান্ডে

স্বামী-শাশুড়ির দেওয়া আগুনে ঝলসে যাওয়া শারমিনের মৃত্যু

অনলাইন ডেস্ক
প্রকাশিত : মার্চ ২৯, ২০২১

শেয়ার করুন

সোনারদেশ২৪: ডেস্কঃ

যৌতুকের জন্য স্বামী শাশুড়ির দেওয়া আগুনে ঝলসে যাওয়া গৃহবধূ শারমিন আকতার অবশেষে মারা গেলেন । ২৭ মার্চ শনিবার সকালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে তার মৃত্যু হয়।

স্বজনরা জানায়, গত ২৩ শে মার্চ মঙ্গলবার গাইবান্ধা সদর উপজেলার মালিবাড়ি গ্রামে যৌতুক না আনতে পারায় স্বামী কোরবান আলী ও তার শাশুড়ি কুলসুম বেগম গৃহবধূ শারমিনের শরীরে আগুন দেয়। তারপর অসুস্থ্য হলে তাকে ঘরবন্দী করে রাখা হয়। পরে গ্রামবাসী অগ্নিদদ্ধ গৃহবধূ শারমিনকে প্রথমে গাইবান্ধা জেলা হাসপাতাল ও পরে রংপুর মেডিকেল কলেজে ভর্তি করে।

সেখানেও তার উন্নতি না হলে তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে ভর্তি করা হয়।

আজ সকালে গাইবান্ধার মালিবাড়ি গ্রামে তার পুড়ে যাওয়া লাশ নিয়ে এলে গ্রামে এক হৃদয় বিদারক দৃশ্যের সৃষ্টি হয়। দূরদূরান্ত থেকে গ্রামের লোকজন ও তার স্বজনরা শারমিনের মরদেহ এক নজর দেখতে ছুটে আসে।

শারমিনের স্বজন ও গ্রামবাসীদের কান্নায় ভারি হয়ে ওঠে এলাকা। তারা শারমিনের হত্যাকারীদের বিচার দেখতে চায়। আজ স্বজনরা তার মরদেহ নিয়ে গাইবান্ধার গ্রামের বাড়িতে এলে কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন স্বজন ও গ্রামবাসী।

উল্লেখ্য, শারমিনের বাবা শফিকুল ইসলাম বাদী হয়ে গাইবান্ধা থানায় মামলা দায়ের করলে পুলিশ স্বামী কোরবান আলী ও শাশুড়ি কুলসুম বেগমকে গ্রেপ্তার করে।

পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ
সর্বশেষ সংবাদ
  • সর্বাধিক পঠিত