শিরোনাম:

ঝাড়বাতির সঙ্গে বিয়ে!

রাজকন্যা লতিফার অবিলম্বে মুক্তির দাবি জাতিসংঘের

অসহায়দের সহায়তায় ১০ কোটি টাকা অনুদান প্রধানমন্ত্রীর

মিসরের ট্রেন দুর্ঘটনায় নিহত বেড়ে ২৩

‘শিশুবক্তা’ রফিকুল ইসলাম ৪ দিনের রিমান্ডে

বিদেশ ফেরত কর্মীদের পূর্ণবাসনে ৭০০ কোটি টাকার ঋণ কার্যক্রম

অনলাইন ডেস্ক
প্রকাশিত : মার্চ ১০, ২০২১

শেয়ার করুন

সোনারদেশ২৪: ডেস্কঃ

বিদেশ ফেরত ও করোনায় মৃত কর্মীদের অর্থনৈতিক পূর্ণবাসনে ৭০০ কোটি টাকার ঋণ কার্যক্রম হাতে নেওয়া হয়েছে।

মঙ্গলবার (৯ মার্চ) একাদশ জাতীয় সংসদের প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির বৈঠকে এ কথা জানানো হয়েছে ৷

কমিটির সভাপতি আনিসুল ইসলাম মাহমুদের সভাপতিত্বে সংসদ ভবনে এ বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়।

বৈঠকে বলা হয়, বিদেশ প্রত্যাগত কর্মীদের এবং প্রবাসে করোনা মহামারীতে মৃত কর্মীদের পরিবারের উপযুক্ত সদস্যকে প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংকের মাধ্যমে বিশেষ পূর্ণবাসন ঋণ প্রদানের জন্য ওয়েজ আনার্স কল্যাণ বোর্ড এবং অর্থনৈতিক পূর্ণবাসনের জন্য সরকার হতে ৫০০ কোটি টাকাসহ মোট ৭০০ কোটি টাকার ঋণ কার্যক্রম হাতে নেওয়া হয়েছে। ঋণ সংক্রান্ত নীতিমালার আলোকে এ ঋণ কার্যক্রম পরিচালিত হবে।

বৈঠকে কমিটির সদস্য প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী ইমরান আহমদ, অধ্যাপক মো. আলী আশরাফ, মোয়াজ্জেম হোসেন রতন, আয়েশা ফেরদাউস, মো. সাদেক খান এবং মো. ইকবাল হোসেন উপস্থিত ছিলেন।

বৈঠকে বিদেশ প্রত্যাগত কর্মীদের রি-ইন্টিগ্রেশন, পুনরায় বিদেশ যেতে আগ্রহী কর্মীদের জন্য ঋণ প্রদান ও সামাজিক নিরাপত্তামূলক কর্মসূচি বাস্তবায়নের সর্বশেষ অগ্রগতি এবং কোভিড-১৯ পরবর্তী শ্রমবাজার পরিস্থিতি, বন্ধ/সাময়িক বন্ধ শ্রমবাজার চালু করতে মন্ত্রণালয়ের উদ্যোগ নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা হয়।

দালালদের দৌরাত্য নির্মূল এবং রিক্রুটমেন্ট কার্যক্রম স্বচ্ছ ও জবাবদিহিতার আওতায় আনায়নের লক্ষ্যে বিদেশ যেতে ইচ্ছুক কর্মীদের রক্ষার উদ্দেশ্যে সকল রিক্রুটিং এজেন্টকে তাদের বৈধ প্রতিনিধির নাম, ঠিকানা, মোবাইল নম্বর সম্বলিত তালিকা সংরক্ষণ করা এবং ৩১ মার্চের মধ্যে বিএমইটি-তে দাখিলের সিদ্ধান্ত গৃহিত হয়েছে বলে কমিটিকে অবহিত করা হয়। এ ডাটা বেইজ তৈরি হলে বিদেশ যেতে ইচ্ছুক কর্মীরা প্রতারণার হাত থেকে রক্ষা পাবে বলে কমিটি মনে করে।

এছাড়া বিদেশ থেকে ফেরৎ আসা কর্মীদের রি-ইন্টিগ্রেশনের জন্য বিশ্ব ব্যাংকের অর্থায়নে ওয়েজ আনার্স কল্যাণ বোর্ডের মাধ্যমে একটি প্রকল্প প্রণয়ন করা হয়েছে বলে সভায় উল্লেখ করা হয়।

ব্যক্তি পর্যায়ে কেউ জমি দান করলে তার নামে টেকনিক্যাল ট্রেনিং সেন্টার (টিটিসি) করা যাবে কিনা সে বিষয়ে পরীক্ষা করে আগামী সভায় মতামত দেওয়ার জন্য মন্ত্রণালয়কে কমিটি সুপারিশ করে।

পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ
সর্বশেষ সংবাদ
  • সর্বাধিক পঠিত