শিরোনাম:

বাংলাদেশকে ধন্যবাদ জানালো ভারত

রাশিয়া আনল করোনার সব ধরনের ভ্যারিয়েন্টের বিরুদ্ধে ‘কার্যকর’ টিকা

নাটোরে ১৯৯ অসচ্ছল সাংস্কৃতিক কর্মীকে প্রধানমন্ত্রীর অনুদান

করোনায় মারা গেলেন অভিনেত্রী অভিলাষা পাতিল

১৫ মে বাজারে আসছে রাজশাহীর আম

পদ্মায় অবৈধ স্পিডবোট বন্ধের কর্তৃপক্ষ নেই!

অনলাইন ডেস্ক
প্রকাশিত : মে ৫, ২০২১

শেয়ার করুন

মুন্সিগঞ্জের শিমুলিয়া ও মাদারীপুরের বাংলাবাজার নৌরুটে চলাচলের জন্য আছে প্রায় চার শতাধিক স্পিডবোট। দীর্ঘদিন নিবন্ধন ও যাচাই-বাছাই ছাড়া অদক্ষ চালক দিয়ে চলাচল করছে যাত্রীদের এমন অভিযোগ দীর্ঘদিনের।

অবৈধ স্পিডবোট চলাচল বন্ধ করতে বিভিন্ন কর্তৃপক্ষ ভিন্ন ভিন্ন বক্তব্য দিয়েছে।

কোস্টগার্ড পাগলা স্টেশনের কমান্ডার লেফটেন্যান্ট আশমাদুল ইসলাম বলেন, শিমুলিয়া-বাংলাবাজার নৌরুটে অবৈধ স্পিডবোট নিয়ন্ত্রণ করে বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন কর্তৃপক্ষ (বিআইডব্লিউটিএ)। আমরা শুধু যাত্রীদের লাইফ জ্যাকেট নিশ্চিত, অতিরিক্ত যাত্রী বহন না করা, নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে চলাচল করছে কি-না এসব দেখাশোনা করে থাকি।

মাওয়া নৌপুলিশের ইনচার্জ কর্মকর্তা সিরাজুল কবীর বলেন, শিমুলিয়া-বাংলাবাজার নৌপথে অবৈধভাবে স্পিডবোট নিয়ন্ত্রণের ব্যাপারে নৌপুলিশকে কোনো ক্ষমতা দেওয়া হয়নি। স্পিডবোট ঘাট ইজারা দিয়েছে বিআইডব্লিউটিএ শিমুলিয়া ঘাট। যারা নিয়ন্ত্রণ করে থাকেন, এ পর্যন্ত অতিরিক্ত যাত্রী বহন, লাইফ জ্যাকেট নিশ্চিতসহ অবৈধভাবে চলাচল বন্ধ করতে বিআইডব্লিউটিএ’র পক্ষ থেকে নৌপুলিশের কাছে সহযোগিতাও চাওয়া হয়নি। আমরা প্রায়ই নিজেদের স্ব-ইচ্ছায় নজর রাখি। নৌপুলিশ থেকেও স্পিডবোট নিয়ন্ত্রণের ব্যাপারে কোনো নির্দেশনা নেই।

শিমুলিয়া নদী বন্দরের নৌ নিরাপত্তা ও ট্রাফিক ব্যবস্থাপনা বিভাগের সহকারী পরিচালক ও সহকারী বন্দর ও পরিবহন কর্মকর্তা (অতিরিক্ত দায়িত্ব) মো. শাহাদাত হোসেন বলেন, বিআইডব্লিউটিএ নৌপুলিশ ও কোস্টগার্ডের মাধ্যমে নির্দেশনা বাস্তবায়ন করা হয়ে থাকে।

মুন্সিগঞ্জ জেলা প্রশাসক (ডিসি) মো. মনিরুজ্জামান তালুকদার বলেন, স্পিডবোট ঘাট দেখাশোনো করা ও অবৈধ চলাচল বন্ধের দায়িত্ব বিআইডব্লিউটিএ’র।

এদিকে শিমুলিয়া স্পিডবোট ঘাটের ইজারাদার শাহ আলম খানের সঙ্গে এ ব্যাপারে কথা বলতে তার মোবাইলে একাধিকবার কল করা হলেও তিনি রিসিভ করেননি।

পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ
সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত