শিরোনাম:

ইভ্যালির গ্রাহকরা যেন ক্ষতিগ্রস্ত না হয়: টিক্যাব

ভারতে মোদির জন্মদিনে দেওয়া হবে দেড় কোটি টিকা

মেট্রোরেলের মালামাল চুরি, গ্রেপ্তার ৫

পুষ্টিগুণে ভরা জাম্বুরা

র‍্যাংকিংয়ে আরও পেছাল বাংলাদেশ

আজ থেকে ব্রিটেনে ভ্যাকসিন কার্যক্রম শুরু

অনলাইন ডেস্ক
প্রকাশিত : ডিসেম্বর ৮, ২০২০

শেয়ার করুন

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ সোনারদেশ২৪:

করোনাভাইরাস মহামারিতে বিপর্যস্ত বিশ্ব প্রত্যাশা নিয়ে থাকিয়ে আছে ব্রিটেনের দিকে। কার্যকর কোনও ওষুধ না থাকায় মহামারি নিয়ন্ত্রণে একমাত্র ভরসা ভ্যাকসিন। আজ (৮ ডিসেম্বর) মঙ্গলবার শুরু হচ্ছে ব্রিটেনে ফাইজার-বায়োএনটেক উদ্ভাবিত করোনার ভ্যাকসিন প্রয়োগ। তাই পুরো পৃথিবীর নজর এখন ব্রিটেনের দিকে। কারণ বিশ্বের প্রথম দেশ হিসেবে নাগরিকদের জন্য করোনা ভ্যাকসিন প্রয়োগ করতে যাচ্ছে দেশটি। রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথ থেকে শুরু করে সব শ্রেণির মানুষের জীবনে নিয়ে এসেছে স্বস্তির বার্তা। রানি নিজেও ভ্যাকসিন গ্রহণের ঘোষণা দিয়েছেন।

ব্রিটেনে ১৭ লাখের বেশি মানুষ কোভিড-১৯ ভাইরাসে সংক্রমিত হয়েছেন। করোনার প্রকোপে সেখানে প্রাণ হারিয়েছেন ৬১ হাজারের বেশি মানুষ। দৈনিক সংক্রমণ গড়ে ১৫ হাজারের কাছাকাছি রয়েছে। এমন পরিস্থিতিতে সামনে থেকে মারণ ভাইরাসের বিরুদ্ধে লড়ছেন যারা, তাদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করাই দেশটির প্রধান লক্ষ্য। তাই জরুরি পরিস্থিতিতে ফাইজারের তৈরি প্রতিষেধক ব্যবহারের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

বিশ্বের প্রথম দেশ হিসেবে জরুরি ভিত্তিতে ফাইজারের টিকা প্রয়োগের অনুমোদন দেয় যুক্তরাজ্য। দেশটির ন্যাশনাল হেল্থ সার্ভিসের (এনএইচএস) তত্ত্বাবধানে পুরো প্রক্রিয়া সম্পন্ন হবে। প্রথম সপ্তাহেই ব্রিটেনে ৮ লাখ ডোজ টিকা দেশটিতে পৌঁছাবে বলে ধারণা করা হচ্ছে। ইতোমধ্যে বেলজিয়াম থেকে টিকা পৌঁছে গেছে।

করোনার বিস্তার প্রতিরোধে নানামূখী সরকারি ব্যর্থতা প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসনকে আক্রমণের লক্ষ্যবন্তুতে পরিণত করেছিল। এই পরিস্থিতিতে টিকা প্রয়োগের ঘোষণা বদলে দিয়েছে পরিস্থিতি। ব্রিটেনের লাখ লাখ মানুষ আশায় বুক বেঁধেছেন। ব্রিটেনের কোটি মানুষের জীবনে বড়দিন আর নতুন বছরের সবচেয়ে বড় উপহার হিসেবে আভির্ভূত হয়েছে এই টিকা।

করোনার বিরুদ্ধে লড়াইয়ে ফ্রন্টলাইনে থাকা স্বাস্থ্যকর্মীসহ সব সেক্টে্রের মানুষের মধ্যেই করোনার ভ্যাকসিন নিয়ে এসেছে নতুন আশার বার্তা।

ফাইজার-বায়োনটেকের করোনা ভ্যাকসিন প্রয়োগ হচ্ছে বলেই এ দিনটিকে ‘ভি ডে’ হিসেবে আখ্যায়িত করেছেন ব্রিটিশ স্বাস্থ্যমন্ত্রী মেট হ্যানকক। এরই মধ্যে ব্রিটেনের সব টিকা প্রদান কেন্দ্রে পৌঁছে গেছে ভ্যাকসিন। ভ্যাকসিন হাব হিসেবে তৈরি করা হয়েছে ইংল্যান্ডের ৫০টি হাসপাতাল।

প্রাথমিকভাবে ৮০ বছরের বেশি বয়সী নাগরিক এবং ও কেয়ার এবং এনএইচএস স্টাফদের ভ্যাকসিন প্রয়োগ করা হবে। কেয়ার হোম রেসিডেন্টদের অগ্রাধিকারের তালিকায় রাখা হয়েছে। কিন্তু কেয়ারহোমগুলোতে লজিস্টিক সাপোর্ট না থাকায় ভ্যাকসিন প্রয়োগের তারিখ এখনও নির্ধারণ করা হয়নি। কারণ ফাইজার-বায়োএনটেকের ভ্যাকসিন কমপক্ষে মাইনাস ৭০ ডিগ্রী সেলসিয়াস তাপমাত্রায় রাখতে হয় এবং এই তাপমাত্রার ভেতরে ব্যবহারের আগে ভ্যাকসিনটি মাত্র চারবার বের করা যাবে। তাই লজিস্টিক সাপোর্ট তৈরি হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে কেয়ারহোমগুলোতে ভ্যাকসিন প্রয়োগ শুরু হবে।

পাবলিক হ্যালথ ইংল্যান্ড, এনএইচএস ইংল্যান্ড, স্কটল্যান্ড ওয়েলস এবং নর্দার্ন আয়ারল্যান্ড ভ্যাকসিন প্রয়োগের তদারকি করবে। ফাইজার-বায়োনটেকের ভ্যাকসিন বহন এবং সংরক্ষণের জন্যে বিশেষ আলট্রা-লো তাপমাত্রার ফ্রিজারের প্রয়োজন। ব্রিটেনের স্বাস্থ্য বিভাগের যেসব বড় বিশেষায়িত ফ্রিজার রয়েছে যাতে এক সঙ্গে ৫ মিলিয়ন ডোজ ভ্যাকসিন সংরক্ষণ করা যাবে।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে ব্রিটেনের বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত সিনিয়র চিকিৎসক সোমবার বলেন, ভ্যাকসিনের ব্যাপারে আমরা কথা বলার দায়িত্বশীল লোক নই। সে কারণে নাম প্রকাশ করে মন্তব্য করা ঠিক হবে না। প্রথম দফায় ৮ লাখ ভ্যাকসিন ব্রিটেনে এসেছে। ডিসেম্বরের মধ্যে ৪০ লাখের বেশি ভ্যাকসিন ডোজ ব্রিটেনে পৌঁছার কথা।

ভ্যাকসিন প্রদান শুরু ব্রিটেনের ব্রিটিশ বাংলাদেশি কমিউনিটির মানুষের মধ্যেও আশার সঞ্চার হয়েছে। ব্রিটেন প্রবাসী ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যা়লয়ের সাবেক ছাত্রনেতা ফয়সল রহমান বড়লেখা উপজেলার বাসিন্দা। তিনিসহ ব্রিটেনে বসবাসরত অন্তত ১৫ জন বাংলাদেশি এই মুহূর্তে করোনা পজেটিভ বা উপসর্গ নিয়ে আইসোলেশনে আছেন। সোমবার তিনি বলেন, ব্রিটেনে করোনায় প্রায় ২২০ জন ব্রিটিশ বাংলাদেশি মারা গেছেন। কমিউনিটিতে প্রতিদিন মৃত্যুর খবর পাওয়া যাচ্ছে ।

পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ
সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত