শিরোনাম:

চীনের টিকা নিয়ে ইন্দোনেশিয়ায় করোনায় আক্রান্ত ৩৫০ চিকিৎসক

বিশ্বজুড়ে নতুন আতঙ্ক ‘সিংকহোল’, হঠাৎ করেই তৈরি হচ্ছে দানবীয় গর্ত

ধর্ষণ মামলায় লড়বেন মিথিলা

বিজ্ঞানীদের হতবাক করে ২৪ হাজার বছর পর ঘুম ভাঙল এই প্রাণীর

ভারতীয় ছেলেরা হট নয়, তাই ডেটিংয়েরও উপযুক্ত নাঃ শ্রীলেখা

ফ্রিল্যান্সারদের আয়-ইন্টারনেট সেবা করমুক্ত থাকছে

অনলাইন ডেস্ক
প্রকাশিত : জুন ৪, ২০২১

শেয়ার করুন

২০২১-২০২২ অর্থবছরের প্রস্তাবিত জাতীয় বাজেটে ইন্টারনেটভিত্তিক বেশ কয়েকটি সেবা ও ফ্রিল্যান্সারদের আয়কে কর মুক্ত রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। ২০২৪ সাল পর্যন্ত এই কর অব্যাহতির প্রস্তাব করা হয়েছে। একই সাথে হার্ডওয়্যার পণ্য দেশেই উৎপাদন করলে শর্ত সাপেক্ষে ১০ বছর কর অব্যাহতিরও প্রস্তাব করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (৩ জুন) জাতীয় সংসদে বাজেট উত্থাপন করেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল।

প্রস্তাবিত বাজেটে ইন্টারনেটভিত্তিক বিভিন্ন সেবা যেমন- ক্লাউড সার্ভিস, সিস্টেম ইন্টেগ্রেশন, ই-লার্নিং, ই-বুক, মোবাইল অ্যাপ্লিকেশন ডেভেলপমেন্ট সার্ভিস এবং আইটি ফ্রিল্যান্সিং সেবা থেকে উদ্ভূত আয় ২০২৪ সাল পর্যন্ত কর অব্যাহতির প্রস্তাব করা হয়েছে। পাশাপাশি  হার্ডওয়্যার পণ্য বাংলাদেশেই উৎপাদনের ক্ষেত্রে শর্ত সাপেক্ষে ১০ বছর কর অব্যাহতিরও প্রস্তাব করা হয়েছে।

এছাড়াও ২২টি আইটিইএস খাতকে আরও সম্প্রসারণের প্রস্তাব করেছেন অর্থমন্ত্রী।

এ বিষয়ে অর্থমন্ত্রী বলেন, ‘বর্তমান যুগ তথ্যপ্রযুক্তির যুগ। সরকার তথ্যপ্রযুক্তি খাতকে সর্বাধিক গুরুত্ব দিচ্ছে। ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মাণের স্বপ্নকে আরও একধাপ এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার জন্য তথ্য প্রযুক্তির কর অব্যাহতিপ্রাপ্ত খাতকে সম্প্রসারিত করা প্রয়োজন। প্রস্তাবিত বাজেটে কর অব্যাহতিপ্রাপ্ত ২২টি আইটিইএস খাতকে আরও সম্প্রসারণ করার প্রস্তাব পেশ করছি। এতে বাংলাদেশের ডিজিটাল ট্র্যান্সফরমেশন ত্বরান্বিত হবে, সহজে ও কম খরচে উন্নত ডিজিটাল সেবাকে জনগণের জন্য সহজলভ্য করা যাবে এবং ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মাণের স্বপ্ন বাস্তবায়নে ইতিবাচক ভূমিকা রাখবে। পাশাপাশি দেশে তরুণ উদ্যোক্তা তৈরি হবে।’

অর্থমন্ত্রী আরও বলেন, ‘ক্লাউড সার্ভিস, সিস্টেম ইন্টেগ্রেশন, ই-লার্নিং প্ল্যাটফর্ম, ই-বুক পাবলিকেশন্স, মোবাইল অ্যাপ্লি­কেশন ডেভেলপমেন্ট সার্ভিস এবং আইটি ফ্রিল্যান্সিং সেবা থেকে অর্জিত আয়কে ২০২৪ সাল পর্যন্ত কর অব্যাহতির প্রস্তাব পেশ করছি। এছাড়াও কয়েকটি আইটি হার্ডওয়্যার বাংলাদেশে উৎপাদন করলে শর্ত সাপেক্ষে ১০ বছর কর অব্যাহতি দেওয়ার প্রস্তাব করছি।’

পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ
সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত