সোনারদেশ২৪: ডেস্কঃ

রাজধানীর শ্যামবাজারে পাইকারি আড়তে বেশি দামে পেঁয়াজ, রসুন, আলু ও আদা বিক্রি করায় ২১ আড়ৎকে ৪০ লাখ ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। এছাড়া ৬ জনকে বিভিন্ন মেয়াদে কারাদণ্ড দিয়েছেন র‌্যাপিড অ‌্য‌াকশন ব‌্যাটালিয়নের (র‌্যাব) ভ্রাম্যমাণ আদালত।

রোববার (২২ মার্চ) সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত রাজধানীর পুরান ঢাকার শ্যামবাজারে অভিযান চালায় র‍্যাব-১০। আদালত পরিচালনা করেন র‌্যাব সদর দপ্তরের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সারওয়ার আলম।

র‍্যাব-১০ এর উপ-অধিনায়ক মেজর শাহারিয়ার জিয়াউর রহমান বলেন, করোনায় এমনিতেই ক্রেতারা আতঙ্কিত, এরমধ্যে অসাধু ব্যবসায়ীরা বেশি দামে পেঁয়াজ, রসুন, আলু ও আদা বিক্রি করছেন। ক্রেতাদের স্বস্তি দিতে রোববার (২২ মার্চ) দিনব্যাপী শ্যামবাজারে পাইকারি আড়তে অভিযান পরিচালনা করা হয়।

‘অভিযানে ২১ আড়ৎকে নগদ ৪০ লাখ ৫০ হাজার টাকা জরিমানা এবং ৬ জনকে বিভিন্ন মেয়াদে কারাদণ্ড দেওয়া হয়। এসময় মেসার্স মকছিত ট্রেডিং নামে একটি আড়ৎ সিলগালা করা হয়। এরমধ্যে মেসার্স নিউ বাণিজ্যালয়কে পাঁচ লাখ টাকা জরিমানা, মেসার্স বাণিজ্যালয়কে দুই লাখ, মেসার্স বাণিজ্যালয়কে তিন লাখ, কাজী এন্টারপ্রাইজকে দুই লাখ, মেসার্স সিকদার অ্যান্ড সন্সকে এক লাখ, মেসার্স আলামিন ট্রেডার্সএক লাখ, মেসার্স শ্রী রাজলক্ষী ভাণ্ডারকে দুই লাখ, নিউ স্বপ্ন বাণিজ্যালয়কে দুই লাখ, মেসার্স কুদ্দুস বাণিজ্যালয়কে এক লাখ, মেসার্স মকছিদ ট্রেডিংকে পাঁচ লাখ, লালন শাহা ভাণ্ডারকে এক লাখ, সেতু বাণিজ্যালয়কে ৫০ হাজার টাকা, তাজমহল বাণিজ্যালয়কে দুই লাখ, আল-হাজ্জ বাণিজ্যালয় দুই লাখ, মেসার্স নূর বিতানকে দুই লাখ, নগর বাণিজ্যালয় এক লাখ, দয়াল ভাণ্ডার এক লাখ টাকা, মেসার্স আমানত ভাণ্ডার দুই লাখ, দ্বীপ এন্টারপ্রাইজ এক লাখ, সেবা কপোর্রেশনকে দুইলাখ টাকা এবং মেসার্স স্বাধীন বাণিজ্যালয়কে দুই লাখ টাকা জরিমানা করা হয়।

দণ্ডপ্রাপ্তদের ঢাকা কেন্দ্রীকারাগারে পাঠানো হয়েছে বলে জানান শাহারিয়ার জিয়াউর রহমান।