মোশাররফের বিচারে গঠিত আদালত অসাংবিধানিক

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ সোনারদেশ২৪:

পাকিস্তানের প্রাক্তন প্রেসিডেন্ট পারভেজ মোশাররফের বিচার হয়েছিল যে ‍বিশেষ আদালতে সেই আদালত গঠন প্রক্রিয়াকে অসাংবিধানিক বলে উল্লেখ করেছে  লাহোর হাইকোর্ট।

পারভেজ মোশাররফের এক আবেদনের শুনানি শেষে তিন সদস্যের হাইকোর্ট বেঞ্চ সোমবার এ রুল দিয়েছেন।

রাষ্ট্রদ্রোহের অভিযোগে দায়ের হওয়া মামলায় গত বছরের ডিসেম্বরে প্রাক্তন এ সেনাশাসককে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছিল ওই আদালত।

হাইকোর্টের দেওয়া এ রুলে মৃত্যুদণ্ড বাতিল হবে কি না তা পরিষ্কার নয়। তবে পাকিস্তান সরকার ও মোশাররফের আনজীবীদের মতে মৃত্যুদণ্ড বাতিল হয়ে যাবে।

হাইকোর্ট বেঞ্চ আরো বলেছেন, মোশাররফের বিরুদ্ধে যে প্রক্রিয়ায় ওই মামলা করা হয়েছে তাও আইনসম্মতভাবে করা হয়নি।

এ ব্যাপারে হাইকোর্টের সংক্ষিপ্ত রায় শিগগিরই প্রকাশ করা হবে বলে জানিয়েছে পাকিস্তানের ডন পত্রিকা ও আলজাজিরা।

প্রসঙ্গত, ইসলামাবাদের একটি বিশেষ আদালত পারভেজ মোশাররফের অনুপস্থিতিতেই গত বছরের ১৭ ডিসেম্বর তাকে রাষ্ট্রদ্রোহের দায়ে দোষী সাব্যস্ত করে মৃত্যুদণ্ড প্রদান করেন।

১৯৯৯ সালে এক সেনা অভ্যুত্থানের মধ্য দিয়ে নওয়াজ শরিফের সরকারকে উৎখাত করে ক্ষমতা দখল করেছিলেনন জেনারেল পারভেজ মোশাররফ। এরপর ২০০১ থেকে ২০০৮ সাল পর্যন্ত প্রেসিডেন্ট হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন তিনি।

ক্ষমতা আরো দীর্ঘায়িত করার জন্য ২০০৭ সালের ৩ নভেম্বর সংবিধান স্থগিত করে জরুরি অবস্থা জারি করেন মোশাররফ।

তবে মুসলিম লিগ নেতা নওয়াজ শরিফ ফের প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত হলে ২০১৩ সালে মোশাররফের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহের ওই মামলা করা হয়। ২০১৪ সালের ৩১ মার্চ বিশেষ আদালতে এ মামলায় মোশাররফকে অভিযুক্ত করে বিচার শুরু হয়।