সোনারদেশ২৪: ডেস্কঃ

সারা দেশে বেসরকারি হাসপাতালগুলোতে সাধারণ রোগীর চিকিৎসা নিশ্চিতের নির্দেশনা চেয়ে হাইকোর্টে রিট আবেদন করা হয়েছে। একই সঙ্গে সাধারণ রোগীদের জরুরি চিকিৎসা সেবা দিতে হাসপাতালগুলোর প্রবেশপথে ‘ইয়েলো জোন’ স্থাপন করার নির্দেশনাও চাওয়া হয়েছে।

বৃহস্পতিবার বিচারপতি ওবায়দুল হাসানের ভার্চুয়াল হাইকোর্ট বেঞ্চে অনলাইনে এ আবেদনটি করেন মানবাধিকার ও পরিবেশবাদী সংগঠন হিউম্যান রাইটস অ্যান্ড পিস ফর বাংলাদেশের (এইচআরপিবি) সভাপতি অ্যাডভোকেট মনজিল মোরসেদ।

মনজিল মোরসেদ জানান, বাংলাদেশে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত রোগী চিহ্নিত হওয়ার পর তাদের চিকিৎসা ও পরীক্ষা নির্দিষ্ট কয়েকটি হাসপাতালে করার ব্যবস্থা নেয় সরকার। ইতোমধ্যে গণমাধ্যমে  প্রকাশিত হয়েছে যে, অনেক বেসরকারি হাসপাতাল ও ক্লিনিকে সাধারণ রোগীরা চিকিৎসা সেবা পাচ্ছে না। এমনকি হাসপাতালে চিকিৎসা না পেয়ে অ্যাম্বুলেন্সে রোগী মারা যাচ্ছে।

উদ্ভূত পরিস্থিতিতে বেসরকারি হাসপাতাল ও ক্লিনিকে সব রোগীদের স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত করার নির্দেশনা চেয়ে জনস্বার্থে এই আবেদনটি করা হয়েছে। এতে  বিবাদীদের প্রতি নির্দেশনা চাওয়া হয়েছে, যাতে প্রতিটি বেসরকারি হাসপাতাল ও ক্লিনিকে পিসিআর মেশিনে করোনা ভাইরাস পরীক্ষার ব্যবস্থা করা হয় এবং প্রবেশপথে হলুদ জোন করে সব রোগীর চিকিৎসা দেওয়া হয়।

কোনো রোগীর করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার উপসর্গ থাকলে সঙ্গে সঙ্গে সেখানে থাকা অবস্থায় পিসিআর মেশিনে পরীক্ষা করে নিশ্চিত হয়ে চিকিৎসার ব্যবস্থা করতে হবে। যদি কোনো হাসপাতাল ও ক্লিনিকের নিজস্ব পিসিআর মেশিন না থাকে তবে সংশ্লিষ্ট এলাকায় যে হাসপাতালে মেশিন আছে সেখান থেকে পরীক্ষার ব্যবস্থা করতে হবে।

একই সঙ্গে হলুদ জোনে দায়িত্বরত ডাক্তার, নার্স ও অন্যদের চিকিৎসার জন্য প্রয়োজনীয় সুরক্ষা উপকরণ নিশ্চিতের নির্দেশনা চাওয়া হয়েছে।