বিশ্বভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ে দেয়াল তোলা নিয়ে লঙ্কাকাণ্ড

21

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ সোনারদেশ২৪:

পশ্চিমবঙ্গের বিশ্বভারতীয় বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ সিদ্ধান্ত নিয়েছিল তাদের খোলা মাঠটিতে দেয়াল তুলবেন। যেমন ভাবা তেমন কাজ। ইট-সুরকি এনে শুরু করে দেওয়া হয় দেয়াল তোলার কাজ। নির্মাণ কাজের জন্য পাশেই তাবু টাঙিয়ে তৈরি করা হয় অস্থায়ী একটি স্থাপনা।

অবশ্য এই দেয়াল তোলার পক্ষে নন স্থানীয়রা। তাইতো সোমবার সকালে প্রায় হাজার তিনেক স্থানীয়রা হামলে পড়েন সেখানে। তারা দেয়াল তোলার সামগ্রী থেকে শুরু করে ভেঙে গুড়িয়ে দেন অস্থায়ী স্থাপনাও। ইট, বালু, চেয়ার, ফ্যান কোনোটিই বাদ যায়নি ভাঙচুরের হাত থেকে। খবর টাইমস অব ইন্ডিয়ার।

স্থানীয়রা কেন হামলা করলেন? আর ছাত্ররাই কেন এটা নিয়ে কিছু বললো না?

মূলত যে মাঠটিতে দেয়াল তোলার সিদ্ধান্ত হয়েছে সেটি স্থানীয়রাও বছরের পর বছর ধরে ব্যবহার করে আসছেন। যদিও এতে বিশ্ববিদ্যালয়ের কোনো ক্ষতি হচ্ছে না। এখানেই নিয়মিত হয় ঐতিহ্যবাহী পৌষ মেলা। যেখানে সবার অবাধ বিচরণ চলে। কিন্তু দেয়াল তুলে মাঠটিকে কুক্ষিগত করতে চেয়েছিল বলেই মনে করছে স্থানীয়রা। সে কারণেই তারা দেয়াল তোলার বিরোধিতা করে হামলা করেছে।

আর বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র-ছাত্রীরাও এই দেয়াল তোলার পক্ষে নয়। তারাও চায় মাঠটি স্থানীয়রাও ব্যবহার করুক। হোক ঐতিহ্যবাহী পৌষ মেলাও। দেয়াল তুলে এখানে কনক্রিটের জঞ্জাল তৈরি করার কোনো মানে দেখছেন না ছাত্র-ছাত্রীরা।

এদিকে হামলার ঘটনায় বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। ছাত্র-ছাত্রীরা এটার বিরোধিতা করেছেন। তারা দাবি জানিয়েছেন দ্রুত বিশ্ববিদ্যালয় খুলে দেওয়ার।

You might also like