কার্টুন প্রদর্শন বন্ধ করবে না ফ্রান্স : ম্যাক্রোঁ

13

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ সোনারদেশ২৪:

ফ্রান্স কার্টুন প্রদর্শন বন্ধ করবে না বলে মন্তব্য করেছেন দেশটির প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁ। বাকস্বাধীনতার বিষয়ে ক্লাসে শিক্ষা দেয়ার সময় ইসলাম ধর্মের প্রবর্তক হযরত মোহাম্মদের (সা.) ব্যাঙ্গচিত্র প্রদর্শন করায় হত্যার শিকার শিক্ষক স্যামুয়েল প্যাটির স্মরণসভায় এমন ঘোষণা দেন ম্যাক্রোঁ।

গতকাল ২২ অক্টোবর, বৃহস্পতিবার সরবোন বিশ্ববিদ্যালয়ে আয়োজিত ওই স্মরণসভায় তিনি বলেন, ‘তাকে (স্যামুয়েল প্যাটি) হত্যা করা হয়েছে কারণ ইসলামপন্থী উগ্রবাদীরা আমাদের ভবিষ্যত কেড়ে নিতে চায়। আমরা তা হতে দেবো না।’

প্যাটির পরিবারের সদস্যদের উপস্থিতিতে আয়োজিত এই অনুষ্ঠানে ম্যাক্রোঁ দৃঢ়কণ্ঠে ঘোষণা দেন, ‘আমরা কার্টুন প্রকাশ বন্ধ করবো না।’

‘কাপুরুষরা’ প্যাটিকে হত্যা করেছে উল্লেখ করে তিনি আরো বলেন, ‘ফরাসি প্রজাতন্ত্রের ধর্মনিরপেক্ষ, গণতান্ত্রিক মূল্যবোধের জন্যই তাকে প্রাণ দিতে হয়েছে।

অনুষ্ঠান চলাকালীন সময়ে ফরাসি পতাকায় আবৃত স্যামুয়েল প্যাটির কফিনটি বিশ্ববিদ্যালয়ের আঙ্গিনায় রাখা ছিল। সেখানে তার মরদেহে শিক্ষার্থী, বন্ধু এবং সহকর্মীরা শেষ শ্রদ্ধা জানান।

অনুষ্ঠানের শুরুতেই প্যাটির পরিবারের অনুরোধে বিখ্যাত আইরিশ ব্যান্ড ‘ইউ-টু’র ‘ওয়ান’ গানটি লাউডস্পিকারে বাজানো হয়। গানটি শেষে উপস্থিত জনতা হর্ষধ্বনি দেন।

উল্লেখ্য, নিজের ক্লাসে মতপ্রকাশের স্বাধীনতার ব্যাখ্যা দিতে দিয়ে হযরত মোহাম্মদের (সা.) ব্যাঙ্গচিত্র দেখিয়েছিলেন স্যামুয়েল প্যাটি। পরে গত ১৬ অক্টোবর, শুক্রবার তিনি যখন নিজ বিদ্যালয় থেকে বাসায় ফিরছিলেন তখন তার ওপর হামলা চালায় চেচেন বংশোদ্ভূত তরুণ আব্দুল্লাখ আনজোরোভ। সে ‘আল্লাহু আকবর’ স্লোগান দিয়ে প্যাটির গলায় ছুরি চালিয়ে প্রকাশ্যে প্যাটির শিরোশ্ছেদ করে।

পরে ওই হামলাকারী পুলিশের গুলিতে নিহত হয়। অবশ্য এর আগেই সে প্যাটির কাটা মাথার ছবি টুইটারে পোস্ট করে।

এদিকে এ হত্যার ঘটনায় জড়িত সন্দেহে ১৪ ও ১৫ বছর বয়সী আরো দুজন কিশোরের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে। তারা শিক্ষক স্যামুয়েল প্যাটির গতিবিধির তথ্য পাচার করেছিল বলে বুধবার জানিয়েছেন ফ্রান্সের সন্ত্রাসবিরোধী প্রসিকিউটর জ্যান-ফ্রাঙ্কোয়েস রিকার্ড। এ নিয়ে প্যাটি হত্যাকাণ্ডে মোট সাতজনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে।

You might also like