সীমান্ত হত্যার প্রতিবাদ করতে পারছে না সরকার : রিজভী

23

সোনারদেশ২৪: ডেস্কঃ

ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনী-বিএসএফ কর্তৃক বাংলাদেশি হত্যার ঘটনায় ‘নতজানু’ সরকার প্রতিবাদ করতে পারছে না বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপির জ্যেষ্ঠ যুগ্ম-মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী।

আজ রোববার দুপুরে নয়াপল্টনে স্বেচ্ছাসেবক দলের এক অনুষ্ঠানে তিনি এই অভিযোগ করেন।

রিজভী বলেন, ‘দেশের সামগ্রিক পরিস্থিতি এত করুণ, দেশের সার্বভৌমত্ব এত দুর্বল যে, প্রায় দু-তিন দিন পরপর বর্ডারে আপনার মানুষকে মারছে। চলতি বছরের আজ পর্যন্ত ৩৩ জনকে হত্যা করেছে বিএসএফ।’

সরকারকে উদ্দেশ করে তিনি বলেন, ‘পৃথিবীর মধ্যে সবচেয়ে প্রাণঘাতী সীমান্ত অঞ্চল হচ্ছে বাংলাদেশ-ভারতের এই সীমান্ত। আপনি এত নতজানু সরকার যে একটা প্রতিবাদও করতে পারছেন না।’

‘আপনার পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ভারতের সঙ্গে আমাদের সম্পর্ক স্বামী-স্ত্রী সম্পর্ক। স্বামী-স্ত্রীর সম্পর্ক থাকলে সীমান্তে মানুষ মারা যায় কিনা? অর্থাৎ এই কথাটার মধ্যে আপনাদের যে আনুগত্য কত হেয় টাইপের এটা অত্যন্ত সুস্পষ্ট’ যোগ করেন বিএনপি মুখপাত্র।

তিনি বলেন, ‘বিএনপির নীতি হচ্ছে- পার্শ্ববর্তী দেশ, দূরবর্তী দেশ সবার সঙ্গে বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক বজায় রাখা। কিন্তু সেটা নিজের স্বার্থকে ক্ষুণ্ন করে নয়। কিন্তু শেখ হাসিনা নিজের ক্ষমতাকে ধরে রাখার জন্য নিজের দেশের স্বার্থকেও তিনি বিসর্জন দিচ্ছেন। এটাই হচ্ছে সবচেয়ে দুর্ভাগ্যজনক।’

স্বেচ্ছাসেবক দলের প্রয়াত সভাপতি শফিউল বারী বাবুর স্মরণে মাদ্রাসার এতিম শিক্ষার্থীদের সহযোগিতা প্রদানে এই অনুষ্ঠান হয়। অনুষ্ঠানটি বাড্ডার একটি মাদ্রাসায় হওয়ার কথা থাকলেও পুলিশের বাধার কারণে এটি নয়া পল্টনের কার্যালয়ে হয়।

You might also like