স্বাস্থ্য ডেস্কঃ সোনারদেশ২৪:

করোনা ভাইরাসে (কোভিড-১৯) আক্রান্ত রোগীদের জরুরি চিকিৎসাসেবা প্রদানের শর্তে এবং উদ্ভূত পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখার লক্ষ্যে স্বাস্থ্য অধিদফতরের অধীনে থাকা বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান/হাসপাতালে আউটসোর্সিংয়ের মাধ্যমে (ক্যাটাগরি-৫) দুই হাজার ছয়শ ৫৪ জন সেবাকর্মী নিয়োগ দেবে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়।

সোমবার (৪ মে) স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের স্বাস্থ্যসেবা বিভাগ প্রশাসন-১ অধিশাখার উপ-সচিব খন্দকার জাকির হোসেন স্বাক্ষরিত এক চিঠিতে এ তথ্য জানা যায়।

এতে বলা হয়, বসুন্ধরা করোনা ডেডিকেটেড হাসপাতালে ল্যাব অ্যাটেনডেন্ট ১০, ওয়ার্ড বয় ১৬০ জন, আয়া ৮০ ও পরিচ্ছন্নকর্মী একশ ৭০ জনসহ মোট চারশ ২০ জন সেবাকর্মী নিয়োগ দেওয়া হবে।

এছাড়া বিভিন্ন হাসপাতাল ও প্রতিষ্ঠানের মধ্যে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে ল্যাব অ্যাটেনডেন্ট ৬ জন, ওয়ার্ড বয় ২৫ জন, আয়া ১৫ জন ও পরিচ্ছন্নকর্মী ২৫ জন, শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ল্যাব অ্যাটেনডেন্ট ৬ জন, ওয়ার্ড বয় ২০ জন, আয়া ১০ জন ও পরিচ্ছন্নকর্মী ২০ জন, মুগদা জেনারেল হাসপাতালে ল্যাব অ্যাটেনডেন্ট ৬ জন, ওয়ার্ড বয় ১৬ জন, আয়া ৮ জন ও পরিচ্ছন্নকর্মী ১৫ জন।

এছাড়া পুরাতন সাতটি মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল (স্যার সলিমুল্লাহ, ময়মনসিংহ, রাজশাহী, রংপুর, সিলেট, চট্টগ্রাম ও বরিশাল) ল্যাব অ্যাটেনডেন্ট ৪২ জন, ওয়ার্ড বয় ১১২ জন, আয়া ৫৬ জন ও পরিচ্ছন্নকর্মী ১০৫ জন, বাকি ৬টি মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল (শহীদ সোহরাওয়ার্দী, কুমিল্লা, ফরিদপুর, খুলনা, দিনাজপুর এম আব্দুর রহিম, বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল) ল্যাব অ্যাটেনডেন্ট ২৪ জন, ওয়ার্ড বয় ৬৪ জন, আয়া ৩২ জন ও পরিচ্ছন্নকর্মী ৬০ জন সেবাকর্মী নিয়োগ দেওয়া হবে।

কুয়েত বাংলাদেশ মৈত্রী সরকারি হাসপাতাল ঢাকায় ল্যাব অ্যাটেনডেন্ট ৬ জন, ওয়ার্ড বয় ১৬ জন, আয়া ৮ জন ও পরিচ্ছন্নকর্মী ১৫ জন।

কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতাল ঢাকায় ল্যাব অ্যাটেনডেন্ট ৬ জন, ওয়ার্ড বয় ২০ জন, আয়া ১০ জন ও পরিচ্ছন্নকর্মী ২০ জন।

রাজধানীর বাংলাদেশ রেলওয়ে হাসপাতালে ল্যাব অ্যাটেনডেন্ট ৪ জন, ওয়ার্ড বয় ৮ জন, আয়া ৪ জন ও পরিচ্ছন্নকর্মী ৮ জন। মিরপুর লালকুঠি মাতৃ ও শিশুস্বাস্থ্য প্রশিক্ষণ প্রতিষ্ঠানে ল্যাব অ্যাটেনডেন্ট ৪ জন, ওয়ার্ড বয় ৮ জন, আয়া ৪ জন ও পরিচ্ছন্নকর্মী ৮ জন।

দেশের ৫৩টি জেলার সদর হাসপাতালে ল্যাব অ্যাটেনডেন্ট ১০৬, ওয়ার্ড বয় ৩১৮, আয়া ১৫৯ ও পরিচ্ছন্নকর্মী ১৭০ জন।

ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন মহাখালী ঢাকায় ল্যাব অ্যাটেনডেন্ট ১০ জন, ওয়ার্ড বয় ১৩৩ জন, আয়া ৬৪ জন ও পরিচ্ছন্নকর্মী ১৩৬ জন ও ২৯টি, ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব ল্যাবরেটরি মেডিসিন অ্যান্ড রেফারেল সেন্টারে ল্যাব অ্যাটেনডেন্ট ১১৬ জন, ওয়ার্ড বয় ২৯ জন ও পরিচ্ছন্নকর্মী ২৯ জন।

শর্তাবলিতে বলা হয়, অর্থ বিভাগের ২০১৯ সালের ১০ জুন এর ২৫৯ নং পরিপত্র অনুযায়ী জনপ্রতি সভামূল্য নির্ধারণ করতে হবে। সভাকর্মের মাধ্যমে সেবা গ্রহণের ক্ষেত্রে সেবা প্রদানকারী প্রতিষ্ঠান সার্ভিস কমিশনের হার ন্যূনতম পাঁচ শতাংশের কম হবে না।

এ সেবা ক্রয়ের ক্ষেত্রে পাবলিক প্রকিউরমেন্ট আইন ২০০৬ ও পাবলিক প্রকিউরমেন্ট বিধিমালা ২০০৮ এর বিধি-বিধান অনুসরণ করতে হবে।

পরিচ্ছন্নকর্মী আউটসোর্সিং প্রক্রিয়ায় সেবা ক্রয়ের ক্ষেত্রে হরিজন সম্প্রদায়কে অগ্রাধিকার দিতে হবে। এ আদেশ ২৮ এপ্রিল ২০২০ থেকে পরবর্তী ছয় মাসের জন্য কার্যকর হবে। স্বাস্থ্য অধিদফতর উল্লেখিত সেবাসমূহের সব ধরনের প্রক্রিয়া সম্পন্ন করবে।