১৪৯ জনকে মাথায় ও বুকে গুলি করে হত্যা করা হয়

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ সোনারদেশ২৪:

চলতি মাসের প্রথম দিকে ইরাকে সরকারবিরোধী বিক্ষোভ দমনে অতিরিক্ত বলপ্রয়োগ করেছিল নিরাপত্তা বাহিনী। টানা কয়েক দিন বিক্ষোভ চলাকালে নিরাপত্তা বাহিনীর হাতে নিহত হয় ১৪৯ বেসামরিক নাগরিক। এদের মধ্যে ৭০ শতাংশকে হত্যা করা হয় সরাসরি মাথাায় অথবা বুকে গুলি করে। মঙ্গলবার প্রকাশিত এক সরকারি প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

প্রতিবেদনটির বরাত দিয়ে বার্তা সংস্থা রয়টার্স  জানিয়েছে, বিক্ষোভে গুলি করার কোনো নির্দেশ  ছিল না। এর জন্য জ্যেষ্ঠ কমান্ডাররাই দায়ী।

১ লা অক্টোবর তীব্র বেকার সমস্যা, নিকৃষ্ট সরকারি সেবা ও দুর্নীতির বিরুদ্ধে ইরাকের  কয়েকটি শহরে বিক্ষোভ ছড়িয়ে পড়ে। টানা কয়েক দিনের বিক্ষোভে সংঘর্ষে ১৪৯ বেসামরিক নাগরিক ও নিরাপত্তা বাহিনীর আট সদস্য নিহত হয়।

তদন্ত প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ‘কমিটি জানতে পেরেছে কর্মকর্তা ও কমান্ডাররা বিক্ষোভ চলাকালে সৃষ্ট বিশৃঙ্খলায় তাদের বাহিনীর ওপর নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ফেলেন। বিক্ষোভকারীদের ওপর গুলি ছুঁড়তে বা তাজা গুলি ব্যবহার করার মতো কোনো নির্দেশ সর্বোচ্চ কর্তৃপক্ষের কাছ থেকে ছিল না।’

প্রধানমন্ত্রী আদেল আব্দুল মাহদি এ ঘটনায় তদন্ত কমিটি গঠন ও তদন্তের ঘোষণা দিয়েছিলেন। এছাড়া তিনি দুর্নীতির বিরুদ্ধে লড়াই ও কর্মসংস্থান সৃষ্টির জন্য পদক্ষেপ নেওয়াসহ মন্ত্রিসভায় রদবদলের প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন।

অবশ্য সমালোচকদের দাবি, প্রধানমন্ত্রীর এসব প্রতিশ্রুতির সবই ফাঁকা এবং এগুলো স্রেফ জনরোষ প্রশমনের জন্য।