শিরোনাম:

বার্সার বিপক্ষে প্রথমার্ধেই ২-০ গোলে এগিয়ে রিয়াল

চট্টগ্রামে হেলে পড়া পাঁচতলা ভবনটি সকালে ভেঙে ফেলা হবে

মিথিলার আইরাকে নিয়ে সৃজিত লিখেছেন, ‘প্রাউড আব্বু’

আজকের রাশি। ১১ এপ্রিল

ইন্দোনেশিয়ায় ভূমিকম্পে ৬ জনের মৃত্যু

‘আমি আর বেঁচে থাকতে চাইনি’

অনলাইন ডেস্ক
প্রকাশিত : মার্চ ৮, ২০২১

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ সোনারদেশ২৪:

ব্রিটিশ রাজ পরিবারে তার জীবন এত বেশি কঠিন হয়ে পড়েছিল যে এক সময় তিনি আর বেঁচে থাকতে চাননি।

মার্কিন টিভি ব্যক্তিত্ব অপরা উইনফ্রের সঙ্গে একান্ত এক সাক্ষাৎকারে এ কথা বলেছেন প্রিন্স হ‌্যারির স্ত্রী মেগান।

তিনি বলেন, সবচেয়ে খারাপ সময়টি ছিল যখন রাজপরিবারের এক সদস্য হ্যারিকে তাদের ছেলের গায়ের রং নিয়ে জিজ্ঞাসা করেছিল যে সে ‘কতটা কালো’ হতে পারে।

প্রিন্স হ্যারিও বলেছেন যে তিনি যখন সরে আসতে চেয়েছিলেন, তখন তার বাবা প্রিন্স চার্লসও তার ফোন ধরাও বন্ধ করে দিয়েছিলেন।

মেগান জানান, এক সময় তিনি একাকী বোধ করতে থাকেন। যখন তাকে বলা হয় যে, তিনি কী করতে পারবেন আর কী করতে পারবেন না। এমন এক সময় দাঁড়ায় যখন তিনি মাসের পর মাস বাড়ি থেকে বের হননি।

সাক্ষাৎকারে মেগান বলেন, তিনি এক সময় ভাবতে শুরু করেন ‘এরচেয়ে বেশি একা হওয়া সম্ভব নয়।’

অপরা তাকে জিজ্ঞেস করেন যে, এক পর্যায়ে গিয়ে তিনি নিজের ক্ষতি করার বা আত্মহত্যার চিন্তা করেছিলেন কিনা? উত্তরে মেগান বলেন, হ্যাঁ। এটা খুব বেশি স্পষ্ট ছিল। খুব স্পষ্ট এবং ভয়ঙ্কর।  সে সময় বুঝতে পারছিলাম না যে কার কাছে যাবো।

মেগান বলেন, গর্ভবতী থাকা অবস্থায় হ্যারির সঙ্গে রয়াল অ্যালবার্ট হলে এক অনুষ্ঠানে অংশ নেওয়ার সময়কার এক ছবির কারণে ‘আতঙ্কবোধ’ করেছিলেন তিনি।

‘ওই অনুষ্ঠানে যাওয়ার আগে আগে সকালে হ্যারির সঙ্গে এ নিয়ে আলাপ হয়েছিল আমার,’ মেগান বলেন।

সূত্র: বিবিসি

পূর্ববর্তী সংবাদ পরবর্তী সংবাদ
সর্বশেষ সংবাদ
  • সর্বাধিক পঠিত